বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > বাইকে অশোক স্তম্ভ লাগানো, সেনা জওয়ানকে ধাওয়া করলেন যুবক
বাইকে অশোক স্তম্ভ লাগানো, সেনা জওয়ানকে ধাওয়া করলেন যুবক। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)
বাইকে অশোক স্তম্ভ লাগানো, সেনা জওয়ানকে ধাওয়া করলেন যুবক। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)

বাইকে অশোক স্তম্ভ লাগানো, সেনা জওয়ানকে ধাওয়া করলেন যুবক

শনিবার দুপুরে বাইক চালিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন অশোক শাহ নামে এলাকার এক যুবক। তখনই বেগুনটারি মোড়ের কাছে তিনি দেখতে পান, নীল রংয়ের বাইকে অশোক স্তম্ভ লাগিয়ে এক যুবক ঘুরে বেড়াচ্ছেন।

অশোক স্তম্ভের যত্রতত্র ব্যবহারের এবার অভিযোগ উঠল এক সেনা জওয়ানের বিরুদ্ধে। বাইকে অশোক স্তম্ভ লাগিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছিলেন তিনি। তাঁকে ধাওয়া করে ধরে ফেলেন স্থানীয় এক যুবক। এরপর ওই জওয়ানকে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়। পুলিশি জেরায় জওয়ান তাঁর নিজের পরিচয় দেয়।

শনিবার দুপুরে বাইক চালিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন অশোক শাহ নামে এক যুবক। তখনই বেগুনটারি মোড়ের কাছে তিনি দেখতে পান, নীল রংয়ের বাইকে অশোক স্তম্ভ লাগিয়ে এক যুবক ঘুরে বেড়াচ্ছেন। দেখার সঙ্গে সঙ্গে পুলিশকে খবর দেন অশোক। এখানেই থেমে থাকেননি। অশোক স্তম্ভ লাগানো ওই বাইক আরোহীকে ধাওয়াও করেন। প্রায় ৫ কিলোমিটার ধাওয়া করে কদমতলা মোড়ের কাছে ওই বাইক আরোহীকে ধরেও ফেলেন অশোক। তখন ঘটনাস্থলে পৌঁছে যান ওসি ট্র্যাফিক বাপ্পা সাহা ও অন্যান্য পুলিশকর্মীরা। তখন ওই বাইক আরোহীকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। জানা যায়, তিনি একজন সেনা জওয়ান। পুলিশকর্মীরা বাইক থেকে অশোক স্তম্ভ খুলেও ফেলেন। এরপর ওই জওয়ানের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থাও গ্রহণ করা হয়। পুলিশি জেরায় নিজের অন্যায়ের কথা স্বীকারও করেছেন ওই জওয়ান। সংবাদমাধ্যমের প্রতিনিধিরা ছবি তুলতে গেলে মুখ লোকাতে শুরু করেন তিনি।

এলাকার স্থানীয় যুবক অশোক শাহ জানান, অশোক স্তম্ভ আমাদের জাতীয় প্রতীক। সেটির এভাবে অবমাননা মেনে নেওয়া যায়নি। বিশেষ করে একজন জওয়ান কীভাবে অশোক স্তম্ভের অবমাননা করতে পারেন, সেটাই ভেবে পাচ্ছি না।

বন্ধ করুন