বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Baguiati murder case: অনলাইনে গেম খেলে ৫০ হাজার টাকা জমিয়েছিল অতনু, জোড়া খুন কাণ্ডে চাঞ্চল্যকর তথ্য
নিহত অতনু দে।

Baguiati murder case: অনলাইনে গেম খেলে ৫০ হাজার টাকা জমিয়েছিল অতনু, জোড়া খুন কাণ্ডে চাঞ্চল্যকর তথ্য

  • এই ঘটনায় মূল অভিযুক্ত সত্যেন্দ্র চৌধুরী এখনও ফেরার রয়েছে। তার খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ। তারই মধ্যে তদন্তে এই তথ্য উঠে এসেছে। নিহত অতনুদের বাবা বিশ্বনাথ দে জানিয়েছেন, অনলাইনে বিভিন্ন ধরনের গেম খেলত অতনু। তার মধ্যে রয়েছে পাবজি, ফিফা প্রভৃতি।

বাগুইআটি কাণ্ডে চাঞ্চল্যকর তথ্য পেল পুলিশ। এই ঘটনার মূল অভিযুক্ত সত্যেন্দ্র চৌধুরীকে পঞ্চাশ হাজার টাকা দিয়েছিল নিহত অতনু দে। সেই বিষয়টি জানার পরে প্রশ্ন উঠেছিল কোথা থেকে এত টাকা পেয়েছিল অতনু? সেই তথ্যের সন্ধানে নেমে তদন্তকারীরা জানতে পারেন অনলাইনে গেম খেলে নাকি এই পরিমাণ টাকা জমিয়ে ছিল অতনু। শুধু তাই নয় সেই টাকা দিয়ে পুজোর আগে একটি বাইক কেনার পরিকল্পনা ছিল অতনুর।

এই ঘটনায় মূল অভিযুক্ত সত্যেন্দ্র চৌধুরী এখনও ফেরার রয়েছে। তার খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ। তারই মধ্যে তদন্তে এই তথ্য উঠে এসেছে। নিহত অতনুদের বাবা বিশ্বনাথ দে জানিয়েছেন, অনলাইনে বিভিন্ন ধরনের গেম খেলত অতনু। তার মধ্যে রয়েছে পাবজি, ফিফা প্রভৃতি। সেই আইডি বিক্রি করে অতনু টাকা জোগাড় করেছিল বলে জানিয়েছেন তার বাবা। জমানো সেই টাকা দিয়ে পুজোর আগে তার বাইক কেনার পরিকল্পনা ছিল জানা গিয়েছে। সেই টাকা তুলে সত্যেন্দ্রকে দিয়েছিলেন অতনু। তার বাবা স্পষ্ট জানিয়েছেন, তাদের কাছ থেকে কোন টাকা নেয়নি অতনু। টাকা তুলে সে বাইক কিনতে গিয়েছিল। তবে অতনু পরিবারের সদস্যেদের সে কথা জানায়নি। বাইক কেনার সূত্রেই সত্যেন্দ্র গাড়িতে করে তুলে নিয়ে গিয়েছিল অভিষেক নস্কর এবং অতনুকে। তারপরেই তাদের অপহরণ এবং খুন।

উল্লেখ্য, গত মাসের ২২ তারিখে বাগুইআটির জগতপুর খাল ধারের বাসিন্দা ওই দুই ছাত্র বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয়ে যায়। এরপরেই তাদের পরিবারের কাছে এক কোটি টাকার মুক্তিপন চেয়ে মেসেজ আসে। তারপরেই পরিবারে তরফে বাগুইআটি থানায় অভিযোগ জানানো হয়। অভিযোগ, পুলিশ কোনও রকম ভাবেই সাহায্য করেনি। তারপরেই তাদের মৃত্যুর খবর পায় পরিবার।

বন্ধ করুন