বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > লটারিতে পুরস্কার জেতার নাম করে প্রতারণা, মানুষকে সচেতন হওয়ার অনুরোধ পুলিশের
লটারিতে পুরস্কার জেতার নাম করে প্রতারণা, মানুষকে সচেতন হওয়ার অনুরোধ পুলিশের। ছবিটি প্রতীকী। (MINT_PRINT)

লটারিতে পুরস্কার জেতার নাম করে প্রতারণা, মানুষকে সচেতন হওয়ার অনুরোধ পুলিশের

  • এবার প্রতারণার ফাঁদে পা দিয়ে ব্যাঙ্কে সঞ্চয় করা অর্থ খুইয়ে বসলেন পূর্ব বর্ধমানের এক বাসিন্দা।

বর্তমানে অনলাইনে প্রতারণা বাড়ছে। লকডাউনের সময় থেকে অনলাইনে লেনদেন বেড়েছে। সেই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে অনলাইনে প্রতারণার ফাঁদ পাতছে প্রতারকরা। কখনও মোবাইল টাওয়ার বসানোর নাম করে, আবার কখনও কেওয়াইসি আপডেটের নাম করে প্রতারণার ফাঁদ পাতছে প্রতারকরা। এবার প্রতারণার ফাঁদে পা দিয়ে ব্যাঙ্কে সঞ্চয় করা অর্থ খুইয়ে বসলেন পূর্ব বর্ধমানের এক বাসিন্দা। লটারিতে পুরস্কার জেতার নাম করে তাঁর ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা হাতিয়ে নিয়েছে প্রতারকরা।

কীভাবে চলছে এই প্রতারণা?

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রথমে প্রতারকরা কোনও এক ব্যক্তিকে ফোন করছে। তিনি লটারিতে পুরস্কার জিতেছেন বলে জানানো হচ্ছে। বলা হচ্ছে, কয়েক লক্ষ টাকা পুরস্কার আপনি জিতেছেন। এরপরে বলা হচ্ছে, নিকটবর্তী কোনও সিএসসি কেন্দ্রে গিয়ে ওই টাকা তুলতে হবে। সেইমতোই সরল বিশ্বাসে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরাও চলে যাচ্ছেন সিএসসি কেন্দ্রে। কিন্তু, তারপরেই ঘটছে বিপত্তি। প্রাথমিকভাবে পুলিশ জানতে পেরেছে, সিএসসি কেন্দ্রে যাওয়ার পরে প্রতারকরা সিএসসি অপারেটরদের ফোন দিতে বলছে। এরপর তাঁদের সঙ্গে কথা বলার সময় প্রতারকরা নিজেদের সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির নিকটাত্মীয় হিসেবে পরিচয় দিচ্ছে। প্রতারকরা পরিবারের প্রচণ্ড বিপদ জানিয়ে সিএসসি অপারেটরদের টাকা পাঠিয়ে দিতে বলছে। আর সিএসসি অপারেটররাও সরল বিশ্বাসে টাকা পাঠিয়ে দিচ্ছেন। এভাবেই টাকা খুইয়ে বসেছেন বহু মানুষ। সম্প্রতি এরকম অভিযোগ পুলিশের কাছে একাধিক এসেছে। এরপরেই এই ধরনের প্রতারকদের জালে আনতে তৎপর হয়েছে পুলিশ।

এ বিষয়ে জেলার পুলিশ সুপার কামনাশিস সেন জানান, 'সাধারণ মানুষ সতর্ক না হওয়া অবদি প্রতারকদের রোখা যাবে না। এর জন্য সাধারণ মানুষকে সচেতন করা হবে। এরকমের কোন ফোন এলে পুলিশের কাছে অভিযোগ জানাতে তিনি অনুরোধ করেছেন।

বন্ধ করুন