বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Bankura: কানে গোঁজা হেডফোনে তারস্বরে গান,ট্রেন হর্ন বাজালেও শুনল না ছাত্র,তারপর…
কানে হেডফোন দিয়ে গান শুনতে শুনতে লাইন ধরে হাঁটছিলেন কলেজ ছাত্র। প্রতীকী ছবি। (Bloomberg) (Bloomberg)

Bankura: কানে গোঁজা হেডফোনে তারস্বরে গান,ট্রেন হর্ন বাজালেও শুনল না ছাত্র,তারপর…

  • এর আগেও রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় এই ধরনের ঘটনা হয়েছে। তারপরেও সতর্ক হননি অনেকেই। এবারও কানে হেডফোন নিয়ে রেললাইন ধরে হাঁটছিলেন বাঁকুড়ার কলেজ ছাত্র। তখনই ট্রেনের ধাক্কায় ছিটকে পড়ে সে।

দুকানে হেডফোন গোঁজা। গান শুনছিল কলেজ ছাত্র। আর গান শুনতে শুনতেই রেললাইন ধরে হাঁটছিল বাঁকুড়ার বেলিয়াতোড় যামিনী রায় কলেজের ওই ছাত্র। সেই সময় সোনামুখী থেকে বাঁকুড়াগামী একটি ট্রেনের ধাক্কায় ছিটকে পড়ে সে। বাসিন্দাদের দাবি, ট্রেনটি বার বার হর্ন বাজিয়েছিল।

এমার্জেন্সি ব্রেকও চিপেছিলেন ট্রেন চালক। কিন্তু তবুও লাইন থেকে সরে যাননি ওই যুবক। আসলে কানে লাগানো হেডফোনে তখন তারস্বরে গান বাজছে। আর সেই আওয়াজের জেরে তিনি ট্রেনের হর্ন শুনতে পাননি। আর তার পরিণতিতে মর্মান্তিক ঘটনা। সোমবার সন্ধ্যায় বেলিয়াতোড় স্টেশনের কাছেই ট্রেনের ধাক্কায় মৃত্যু হয়েছে তার। মৃত ছাত্রের নাম অরুণাংশু ঘোষ।

এদিকে বাসিন্দাদের দাবি শেষ মুহূর্তেও চালক ওই যুবককে লাইন থেকে সরে যাওয়ার জন্য সবরকম চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু শেষরক্ষা হল না। ধাক্কা দেওয়ার পরে ট্রেনটি দাঁড়িয়ে পড়ে। জখম ছাত্রকে উদ্ধার করে ওই ট্রেনে করেই প্রথমে বাঁকুড়া স্টেশনে নিয়ে যাওয়া হয়। এরপর তাকে বাঁকুড়া সম্মিলনী মেডিকেল কলেজে ভর্তি করা হয়। কিন্তু হাসপাতালেই মৃত্যু হয় তার।

এদিকে কানে হেডফোন নিয়ে কেউ যাতে রেললাইন পারাপার না করে সেব্যাপারে বারবার সতর্ক করা হয় যাত্রীদের। এনিয়ে একাধিকবার দুর্ঘটনা হয়েছে। কিন্তু তারপরেও সতর্ক হয়নি বাসিন্দাদের একাংশ। আর তারই পরিণতিতে এই মর্মান্তিক দুর্ঘটনা প্রাণ কাড়ল বাঁকুড়ার ছাত্রের।

বন্ধ করুন