বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > বারাসতের একমাত্র কংগ্রেস কাউন্সিলর দীপক দাশগুপ্তর তৃণমূলে যোগ, পড়ল পোস্টার
কংগ্রেস কাউন্সিলর দীপক দাশগুপ্ত।
কংগ্রেস কাউন্সিলর দীপক দাশগুপ্ত।

বারাসতের একমাত্র কংগ্রেস কাউন্সিলর দীপক দাশগুপ্তর তৃণমূলে যোগ, পড়ল পোস্টার

  • আগামী ২১ জুলাই আনুষ্ঠানিকভাবে যোগদান করবেন তিনি বলে সূত্রের খবর।

বরাবরই তিনি ডানপন্থী। বারাসত শহরের একমাত্র কংগ্রেস কাউন্সিলর দীপক দাশগুপ্ত। এবার তিনি তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দিতে চাইছেন। ইতিমধ্যেই উত্তর ২৪ পরগনার জেলা সভাপতি জ্যোতিপ্রিয় মল্লিককে চিঠি লিখে তৃণমুল কংগ্রেসে যোগ দেওয়ার কথা জানিয়েছেন। আগামী ২১ জুলাই আনুষ্ঠানিকভাবে যোগদান করবেন তিনি বলে সূত্রের খবর। এই বিষয়ে দীপক দাশগুপ্তের দাবি, আগামী ২১ জুলাই আনুষ্ঠানিকভাবে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দিচ্ছেন তিনি। এই খবর প্রকাশ্যে আসতেই পোস্টার পড়েছে এলাকায়। যেখানে স্পষ্ট বার্তা রয়েছে, ‘জননেত্রীর অপমানকারীকে দলে মানব না।’‌

তাঁর বিরুদ্ধে বারাসাতের ছোট বাজার, কলোনী মোড় চত্ত্বরে তৃণমুল নেত্রীকে অবমাননাকর পোস্ট নিয়ে পোস্টার পড়েছে। সেখানে মমতার সৈনিকবর্গ বলে নিজেদের উল্লেখ করা হয়েছে। দীপক দাশগুপ্ত বলেন, ‘‌মানুষ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেই আসল কংগ্রেস বলে মনে করে। উনি সাম্প্রদায়িক শক্তির বিরুদ্ধে লড়াইয়ের একমাত্র মুখ তা প্রমাণিত। তাই আমি বাংলার মানুষের রায়কে মাথা পেতে নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাত শক্ত করতে চাই। তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দিতে চেয়ে আমি আবেদন জানিয়েছিলাম। তা গ্রাহ্য হয়েছে। ২১ তারিখ আমি আনুষ্ঠানিকভাবে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দেব।’‌

কিন্তু আপনার বিরুদ্ধে যে পোস্টার পড়েছে?‌ সপাটে জবাব দিয়ে তিনি বলেন, ‘‌নাম–গোত্রহীন পোস্টারকে তৃণমুলের মতো প্রতিষ্ঠিত দল গুরুত্ব দেয় না।’‌ কংগ্রেসে থাকাকালীন তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ব্যঙ্গ করে পোস্ট করেছিলেন। সেই পোস্টের স্ক্রিন শটের সঙ্গে বিভিন্ন জায়গায় পোস্টার লাগানো হয়। আর বারাসাতের পুরপ্রশাসক ও জেলা তৃণমুল কংগ্রেসের মুখপত্র সুনীল মুখোপাধ্যায় বলেন, ‘‌দীপক দাশগুপ্তকে দলে নেওয়া শুধু সময়ের অপেক্ষা।’‌

বন্ধ করুন