বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Security: ব্যারাকপুর কমিশনারেট ৪১ জন তৃণমূল নেতা–নেত্রীর নিরাপত্তারক্ষী প্রত্যাহার করল

Security: ব্যারাকপুর কমিশনারেট ৪১ জন তৃণমূল নেতা–নেত্রীর নিরাপত্তারক্ষী প্রত্যাহার করল

ব্যারাকপুর কমিশনারেট।

ব্যক্তিগত নিরাপত্তা রক্ষী প্রত্যাহারের তালিকায় রয়েছেন ব্যারাকপুরের সাংসদ অর্জুন সিংয়ের ভগ্নিপতি সুনীল সিং এবং সৌরভ সিং। জগদ্দলের প্রাক্তন বিধায়ক পরশ দত্ত, আলিপুরদুয়ারের প্রাক্তন বিধায়ক সৌরভ চক্রবর্তী ছাড়াও এই তালিকায় রয়েছেন একাধিক নেতা–নেত্রী। মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে তৎপর প্রশাসনিক কর্তারা।

এবার বড় পদক্ষেপ করল ব্যারাকপুর কমিশনারেট। সরাসরি ৪১ জন তৃণমূল কংগ্রেস নেতা–নেত্রীর নিরাপত্তা তুলে নিল ব্যারাকপুর কমিশনারেট। আর এই খবর প্রকাশ্যে আসতেই রাজ্য–রাজনীতিতে শোরগোল পড়ে গিয়েছে। কারণ প্রাক্তন বিধায়ক, পুরসভার চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান, কাউন্সিলর–সহ ৪১ জন তৃণমূল নেতা–নেত্রীর নিরাপত্তা নিয়ে বড় পদক্ষেপ করল ব্যারাকপুর কমিশনারেট। কারও নিরাপত্তা পুরোপুরি তুলে নেওয়া হল। কারও ক্ষেত্রে কমানো হল নিরাপত্তারক্ষীর সংখ্যা। এই নিয়ে এখন চর্চা তুঙ্গে।

এই ব্যক্তিগত নিরাপত্তা রক্ষী প্রত্যাহারের তালিকায় রয়েছেন ব্যারাকপুরের সাংসদ অর্জুন সিংয়ের ভগ্নিপতি সুনীল সিং এবং সৌরভ সিং। জগদ্দলের প্রাক্তন বিধায়ক পরশ দত্ত, আলিপুরদুয়ারের প্রাক্তন বিধায়ক সৌরভ চক্রবর্তী ছাড়াও এই তালিকায় রয়েছেন একাধিক নেতা–নেত্রী। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশে অতিরিক্ত ব্যয় কমাতে তৎপর প্রশাসনিক কর্তারা। এবার গোয়েন্দা রিপোর্টের ভিত্তিতে জেলায় জেলায় জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গে থাকা নিরাপত্তারক্ষীর ক্ষেত্রেও শুরু হল প্রত্যাহার করার কাজ। ব্যারাকপুর কমিশনারেট এলাকা দিয়েই শুরু হল সেই কাজ।

ঠিক কী আছে গোয়েন্দা রিপোর্টে?‌ সূত্রের খবর, গোয়েন্দাদের রিপোর্টের তথ্যে এই ৪১ জনের ব্যক্তিগত জীবনের কোন ঝুঁকি নেই। তাই এই জনপ্রতিনিধিদের নিরাপত্তা রক্ষী প্রত্যাহার করে নিচ্ছে ব্যারাকপুর কমিশনারেট। জনপ্রতিনিধিদের নিরাপত্তারক্ষী মোতায়েন থাকে ডাইরেক্টর অফ সিকিউরিটির সুপারিশ। আর সেই সুপারিশ অনুযায়ী স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে নিরাপত্তা দেওয়া হয়। রবিবার ব্যারাকপুর কমিশনারেটের পক্ষ থেকে জনপ্রতিনিধিদের নিরাপত্তা রক্ষী প্রত্যাহার করে নেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়ে দেওয়া হয়।

কারা আছে এই তালিকায়?‌ সুনীল সিং, সৌরভ সিং, সৌরভ চক্রবর্তী ছাড়াও এই তালিকা বেশ দীর্ঘ। এখানে উত্তর দমদম পুরসভার চেয়ারম্যান বিধান বিশ্বাস, নৈহাটি পুরসভার চেয়ারম্যান অশোক চট্টোপাধ্যায়, তৃণমূল কংগ্রেসের বনগাঁ সাংগঠনিক জেলার প্রাক্তন সভানেত্রী আলোরানি সরকার–সহ তৃণমূল কংগ্রেসের একঝাঁক নেতা–নেত্রী আছেন। আজ, মঙ্গলবার থেকেই কার্যকরি হচ্ছে এই সিদ্ধান্ত। বাহিনীতে ঘাটতি এবং পরিস্থিতি পর্যালোচনা করেই এই পদক্ষেপ বলে জানিয়েছে ব্যারাকপুর পুলিশ কমিশনারেট। এই ব্যক্তিগত নিরাপত্তা রক্ষীদের খরচ বহন করতে হয় সরকারকে। অতিরিক্ত ব্যয় কমাতে রাজ্য সরকার অনেকদিন থেকেই বিভিন্ন দিক খতিয়ে দেখে একাধিক সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে।

এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup

বন্ধ করুন