বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Mid day meal: মিড ডে মিলে কারচুপি হাতেনাতে ধরলেন বিডিও, স্কুল পরিদর্শককে তদন্তের নির্দেশ
মিড ডে মিলে দুর্নীতির অভিযোগ। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)

Mid day meal: মিড ডে মিলে কারচুপি হাতেনাতে ধরলেন বিডিও, স্কুল পরিদর্শককে তদন্তের নির্দেশ

  • দিন কয়েক আগেই স্কুলে ঝটিকা সফরে গিয়েছিলেন নন্দকুমার ব্লকের বিডিও শানু বক্সি। সেখানে তার চোখের পরে মিড ডে মিলে কারচুপি। তিনি জানান, ‘রুটিন ভিজিটে গিয়ে স্কুলে দেখি ৫০ থেকে ৬০ জনের মতো রান্না করা হয়েছে অথচ সরকারি পোর্টালে ৩৫০ জনের নাম তোলা হয়েছে।’

মিড ডে মিলে কারচুপির অভিযোগ উঠল প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে। হাতেনাতে সেই কারচুপি ধরে ফেলেলন বিডিও। ৫০ জনের জন্য খাবার রান্না করে ৩৫০ জনের খাবার রান্না করা হচ্ছে বলে সরকারি পোর্টালে লেখা হচ্ছে। এই অভিযোগ উঠেছে পূর্ব মেদিনীপুরের কড়ক চন্দ্র স্মৃতি হাইস্কুলের বিরুদ্ধে। এই ঘটনায় স্কুল পরিদর্শককে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন স্থানীয় বিডিও শানু বক্সি।

দিন কয়েক আগেই স্কুলে ঝটিকা সফরে গিয়েছিলেন নন্দকুমার ব্লকের বিডিও শানু বক্সি। সেখানে তার চোখে পরে মিড ডে মিলে কারচুপি। তিনি জানান, ‘রুটিন ভিজিটে গিয়ে স্কুলে দেখি ৫০ থেকে ৬০ জনের মতো রান্না করা হয়েছে অথচ সরকারি পোর্টালে ৩৫০ জনের নাম তোলা হয়েছে।’ এই ঘটনায় প্রধান শিক্ষক সহ এক অশিক্ষক কর্মীর বিরুদ্ধে মিড ডে মিলে দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে।

যদিও স্কুলের প্রধান শিক্ষক নিতাই চাঁদ প্রামাণিক এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তিনি বলেন, বিডিও যেদিন স্কুল পরিদর্শনে গিয়েছিলেন সেদিন পরীক্ষা চলছিল। তাছাড়া এসএমএসে কিছুটা সমস্যা হয়েছিল। সে কথা বিডিওকে জানানো হয়েছে। এখন অবধি কোনও শোকজ নোটিশ পাঠানো হয়নি বলে তিনি দাবি করেছেন।

মিড ডে মিলে কারচুপি প্রকাশ্যে আসতেই শুরু হয়েছে রাজনৈতিক তরজা। বিজেপির রাজ্য কমিটির সদস্য প্রদীপ দাস অভিযোগ করেছেন, যারা লক্ষ লক্ষ টাকা দিয়ে শিক্ষক হচ্ছে তাদের কাছে এর থেকে বেশি কিছু আশা করা যায় না। তদন্ত করলে দেখা যাবে এই সমস্ত টাকা তৃণমূল নেতা নেত্রীরা ভাগ করে নিচ্ছে। অন্যদিকে, নন্দকুমার পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি তথা তৃণমূল নেতা দীননাথ দাস বলেন, বিজেপি কোনও উন্নয়নের কাজে থাকে না। ওরা বিরোধিতা করবে এটাই স্বাভাবিক। তবে এর সঙ্গে তৃণমূলের কোনও যোগ নেই।

বন্ধ করুন