বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > সাতদিনের মধ্যে ১০,০০০ টাকা পাবে দ্বাদশ শ্রেণির পড়ুয়ারা, জানালেন মমতা
মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)
মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)

সাতদিনের মধ্যে ১০,০০০ টাকা পাবে দ্বাদশ শ্রেণির পড়ুয়ারা, জানালেন মমতা

  • কয়েকজন পড়ুয়াও মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলে।

আগেই ঘোষণা করা হয়েছিল। অবশেষে আজ (বৃহস্পতিবার) থেকে ট্যাব এবং স্মার্টফোন কেনার জন্য দ্বাদশ শ্রেণির পড়ুয়াদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে সরাসরি টাকা পাঠানোর কাজ শুরু করল রাজ্য সরকার। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দাবি করেছেন, আগামী সাতদিনের মধ্যে রাজ্যের ন'লাখ পড়ুয়ার অ্যাকাউন্টে ১০,০০০ টাকা পৌঁছে যাবে।

করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে ১০ মাসেরও বেশি বন্ধ আছে রাজ্যের স্কুলগুলিতে। বিকল্প হিসেবে অনলাইনে পঠনপাঠন শুরু হলেও গ্রামের অধিকাংশ পড়ুয়ার ক্ষেত্রে স্মার্টফোন নেই। তার ফলে অনেক পড়ুয়ারাই সমস্যার মুখে পড়ছেন। সেই পরিস্থিতির কথা বিবেচনা করে গত মাসের গোড়ার দিকে মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছিলেন, রাজ্যের উচ্চ মাধ্যমিক স্কুল এবং মাদ্রাসাগুলিকে অনলাইন দ্বাদশ শ্রেণির পড়ুয়াদের ট্যাব প্রদান করা হবে। কিন্তু পরে মুখ্যমন্ত্রী জানান, পড়ুয়াদের সরাসরি ট্যাব দেওয়া হবে না। বরং সরাসরি ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে ১০,০০০ টাকা পাঠানো হবে। তা দিয়ে পড়ুয়ারা অনলাইনে ক্লাস করার ট্যাব বা প্রয়োজনীয় ডিভাইস কিনে নিতে পারবে। সেইমতো তথ্য সংগ্রহের কাজ চলে।

তারপর বৃহস্পতিবার নবান্নে ভার্চুয়াল বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী জানান, আজ থেকেই উচ্চ মাধ্যমিক এবং মাদ্রাসা দ্বাদশ শ্রেণির পড়ুয়াদের জন্য টাকা পাঠানোর কাজ শুরু হয়েছে। বাজারে একলপ্তে ন'লাখ ট্যাব বা স্মার্টফোন পাওয়া যাচ্ছে না। সেজন্য পড়ুয়াদের অ্যাকাউন্টে সরাসরি টাকা পাঠানো হচ্ছে। তাহলে পড়ুয়ারা নিজেদের পছন্দমতো ডিভাইস কিনে অনলাইনে পড়াশোনা করতে পারবে। ভবিষ্যতের জন্য পড়ুয়াদের শুভেচ্ছাও জানান মুখ্যমন্ত্রী।

কয়েকজন পড়ুয়াও মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলে। মুখ্যমন্ত্রীকেও ধন্যবাদ জানায় পড়ুয়ারা। তারইমধ্যে এক পড়ুয়াকে মমতা পরামর্শ দেন, ‘এটাকে একটু যত্ন করে রাখবে। কেউ যেন চুরি করে না নিতে পারে, সেটা দেখ। ঠিক আছে? স্মার্টফোন কিন্তু ভালো হয়। খুব স্মার্ট হয়। সুতরাং স্মার্ট ফোনের মতো স্মার্ট থেক। আর দেখ, কেউ যেন চুরি করে না নিতে পারে।’

বন্ধ করুন