বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > সরকারি অফিসে ৫০ শতাংশের বেশি হাজিরা নয়, করোনা বাড়বাড়ন্তে নির্দেশ নবান্নের
নবান্ন (‌ছবি সৌজন্য টুইটার)‌
নবান্ন (‌ছবি সৌজন্য টুইটার)‌

সরকারি অফিসে ৫০ শতাংশের বেশি হাজিরা নয়, করোনা বাড়বাড়ন্তে নির্দেশ নবান্নের

৪৮ ঘণ্টার মধ্যে সরকারি—বেসরকারি হাসপাতালগুলিকে চূড়ান্ত প্রস্তুতি নেওয়ার নির্দেশ।

রাজ্যের করোনা পরিস্থিতি আবারও ভয়াবহ হয়ে উঠেছে। করোনা আবহে এবার বড়সড় ঘোষণা করল নবান্ন। নবান্ন সূত্রে জানা গিয়েছে, ফের সরকারি দফতরগুলোতে ৫০ শতাংশের বেশি যাতে হাজিরা না হয়, নবান্নের প্রশাসনিক স্তরে সেই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

অন্যদিকে, নবান্নের তরফে রাজ্যের সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালগুলিকে সবদিক থেকে প্রস্তুত হওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে রাজ্যের সমস্ত সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালগুলিকে কোভিড মোকাবিলার জন্য চূড়ান্ত প্রস্তুতি নিতে নির্দেশ দিয়েছে নবান্ন।

নবান্ন সূত্রে খবর, এবার পুরোপুরি ৫০ শতাংশ হাজিরার নির্দেশ বহাল রাখতে চলেছে রাজ্য। অত্যন্ত কড়াকড়ির সঙ্গে বিষয়টি দেখা হবে। সূত্রের খবর, ইতিমধ্যেই বেশ কয়েকটি দফতর এই নির্দেশিকা জারিও করেছে।গত বছর অক্টোবর মাসে করোনা মোকাবিলায় হাসপাতালগুলিকে যে ভূমিকায় দেখা গিয়েছে, ফের সেই ভূমিকা আবারও নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

তারইমধ্যে বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জানিয়েছেন, লকডাউনের পরিবর্তে রাত ন'টা বা ১০ টা থেকে ‘করোনাভাইরাস কার্ফু’ জারি করা যেতে পারে। তা চলতে পারে ভোর পাঁচটা বা সকাল ছ'টা পর্যন্ত। মোদীর কথায়, ‘ছোটো ছোটো কনটেন্টমেন্ট জোনের উপর আমাদের জোর দিতে হবে। যেখানে যেখানে নাইট কার্ফু চলছে, সেখানে নাম পরিবর্তন করে করোনাভাইরাস কার্ফু নাম রাখা হোক, যাতে করোনার প্রতি সচেতনতা গড়ে ওঠে। তাতে বাকি জীবনের উপর প্রভাব পড়বে। রাত্রিকালীন কার্ফু নিয়ে অনেকে প্রশ্ন তোলবেন। কিন্তু রাত্রিকালীন কার্ফুর ফলে অন্যান্য সময়ের কাজে প্রভাব পড়ে না। এই নামেই চালু করা হোক। একদিক থেকে করোনাভাইরাস কার্ফু মানুষকে শিক্ষিত করার কাজে লাগবে।’

বন্ধ করুন