বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > দুঃস্থ পরিবার থেকেও উঠে আসবে IAS-IPS, স্বপ্নপূরণে সাহায্য করবে মমতা সরকার
সম্প্রতি এই প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে এসেছিলেন মুখ্যমন্ত্রীর মুখ্য উপদেষ্টা তথা রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের পরিকাঠামো দেখে সন্তোষ প্রকাশ করেন তিনি। (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)
সম্প্রতি এই প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে এসেছিলেন মুখ্যমন্ত্রীর মুখ্য উপদেষ্টা তথা রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের পরিকাঠামো দেখে সন্তোষ প্রকাশ করেন তিনি। (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)

দুঃস্থ পরিবার থেকেও উঠে আসবে IAS-IPS, স্বপ্নপূরণে সাহায্য করবে মমতা সরকার

ইতিহাস, ভূগোল, অর্থনীতি ও রাষ্ট্রবিজ্ঞানের সঙ্গে সাধারণ জ্ঞান নিয়েও এই সেন্টারে বিশেষ ক্লাস নেওয়া হবে।

‌আর্থিকভাবে পিছিয়ে থাকা ঘরের ছেলেমেয়েরাও যাতে আইএএস, আইপিএস হওয়ার প্রশিক্ষণ পায়, এবার সেই কোর্স চালু করল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকার। বিধাননগরের সত্যেন্দ্রনাথ ঠাকুর সিভিল সার্ভিস সেন্টার থেকে এই কোর্স চালু করা হয়েছে। সম্প্রতি এই প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে এসেছিলেন মুখ্যমন্ত্রীর মুখ্য উপদেষ্টা তথা রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের পরিকাঠামো দেখে সন্তোষ প্রকাশ করেন তিনি।|

প্রশিক্ষণ শিবিরে এসে রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যসচিব বলেন, ‘‌রাজ্য সরকারের নেতাজি সুভাষ অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রেনিং ইনস্টিটিউট রয়েছে। এর পাশাপাশি সত্যেন্দ্রনাথ ঠাকুর সিভিল সার্ভিস স্টাডি সেন্টারটি রয়েছে। এখানে আইএএস, আইপিএস পরীক্ষায় বসতে ইচ্ছুক তরুণ–তরুণীরা সামান্য খরচে পরীক্ষায় বসার সুযোগ পাবে।’‌ একইসঙ্গে তিনি জানান, কোর্সে উপযুক্ত শিক্ষক হিসাবে আইএএস ও আইপিএস আধিকারিকদের কাজে লাগানো হবে। সর্বভারতীয় পরীক্ষায় রাজ্যের প্রতিনিধিত্ব যাতে বাড়ানো যায়, সেই কথা মাথায় রেখেই রাজ্য সরকারের এই প্রয়াস। কোর্স সম্পর্কে বলতে গিয়ে সেন্টারের দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রাক্তন পুলিশকর্তা সুরজিৎ করপুরকায়স্থ জানান, দু'মাসের কোর্স করানো হবে। অনলাইনেই এই কোর্স করানো হবে।


উল্লেখ্য, রাজ্য সরকারের তৈরি এই সেন্টারে চেয়ারম্যান হিসাবে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে সুরজিৎ কর পুরকায়স্থকে। পাশাপাশি কোর্সের ডিরেক্টর হয় রাজনবীর কাপুরকে। ইতিহাস, ভূগোল, অর্থনীতি ও রাষ্ট্রবিজ্ঞানের সঙ্গে সাধারণ জ্ঞান নিয়েও এই সেন্টারে বিশেষ ক্লাস নেওয়া হবে। এর আগেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারের তরফে এই বিশেষ উদ্যোগের কথা জানিয়েছিলেন। ইতিমধ্যে রাজ্য সরকারের তরফে এই ধরনের উদ্যোগ শুরু হয়ে গিয়েছে। এবার নতুন এই সেন্টার চালুর ফলে আরও বেশি সংখ্যক ছেলেমেয়ে এই বিশেষ প্রশিক্ষণের সুযোগ পেল বলেই মনে করা হচ্ছে।

নে করা হচ্ছে।

বন্ধ করুন