বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > টিকাকরণ শুরুর দিনে বাংলা আরও উন্নতি করোনা পরিস্থিতির, সুস্থতা ৯৭ শতাংশের কাছে
কলকাতার একটি হাসপাতালে চলছে টিকা দেওয়ার প্রস্তুতি। (ছবি সৌজন্য এএনআই)
কলকাতার একটি হাসপাতালে চলছে টিকা দেওয়ার প্রস্তুতি। (ছবি সৌজন্য এএনআই)

টিকাকরণ শুরুর দিনে বাংলা আরও উন্নতি করোনা পরিস্থিতির, সুস্থতা ৯৭ শতাংশের কাছে

  • নয়া আক্রান্তের তুলনায় সুস্থ রোগীর সংখ্যা বেশি হওয়ায় সক্রিয় আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমশ নিম্নমুখী।

দেশজুড়ে টিকাকরণ শুরুর দিনে বাংলায় আরও কমল সক্রিয় করোনাভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা। শনিবার পর্যন্ত রাজ্যে ৭,১৫১ জনের শরীরে করোনার অস্তিত্ব আছে। গত ২৪ ঘণ্টায় আবারও নয়া আক্রান্তের তুলনায় সুস্থ রোগীর সংখ্যা বেশি হওয়ায় সক্রিয় আক্রান্তের সংখ্যা কমেছে ৭২।

এমনিতেই ধীরে ধীরে রাজ্যের করোনা পরিস্থিতি ভালো হচ্ছে। তারইমধ্যে শনিবার থেকে পশ্চিমবঙ্গ-সহ সারাদেশে শুরু হয়েছে করোনা টিকাকরণ প্রক্রিয়া। সেদিনও রাজ্যে নয়া আক্রান্তের সংখ্যাকে ছাপিয়ে গিয়েছে সুস্থতার সংখ্যা। গত ২৪ ঘণ্টায় বঙ্গে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৬০৯ জন। ওই সময়ের মধ্যে ৬৬৬ জন সুস্থ হয়ে উঠেছেন। শুক্রবারের তুলনায় শনিবার যেমন দৈনিক আক্রান্তের (৬২৩) সংখ্যা কমেছে, তেমনই সুস্থ রোগীর সংখ্যা (৬৫৬) বেড়েছে। শুক্রবারের তুলনায় দৈনিক নমুনা পরীক্ষার হার সামান্য কমলেও সংক্রমণের হার কমেছে। শুক্রবার যেখানে ‘পজিটিভিটি রেট’ ছিল ২.০৩৮। শনিবার তা সামান্য কমে দাঁড়িয়েছে ২.০২৯।

রাজ্যে সার্বিকভাবে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা কমলেও এখনও অধিকাংশ নয়া আক্রান্তের হদিশ মিলেছে সেই কলকাতা এবং উত্তর ২৪ পরগনা থেকেই। গত ২৪ ঘণ্টায় কলকাতায় ১৫০ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। পার্শ্ববর্তী উত্তর ২৪ পরগনায় সেই সংখ্যাটা ১৮৬। শুক্রবারও কলকাতাকে (১৭১) টেক্কা দিয়েছিল উত্তর ২৪ পরগনা (১৮৫)। নয়া আক্রান্তের সংখ্যার মতো দৈনিক সুস্থতার নিরিখেও শনিবার কলকাতাকে টপকে গিয়েছে উত্তর ২৪ পরগনা। গত ২৪ ঘণ্টায় উত্তর ২৪ পরগনার ১৭০ জন করোনা-মুক্ত হয়েছেন। কলকাতায় সেই সংখ্যাটা ১৩১। সবমিলিয়ে রাজ্যে মোট সুস্থ রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫৪৭,৫১৫ বা ৯৬.৯৬ শতাংশ।

অন্যদিকে, গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে ১৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। তার মধ্যে ছ'জন উত্তর ২৪ পরগনার, দু'জন কলকাতার। এছাড়া কালিম্পং, মুর্শিদাবাদ, নদিয়া, বীরভূম, দুই বর্ধমান এবং হুগলি থেকে একজন করে করোনা আক্রান্তের মৃত্যুর খবর মিলেছে। সবমিলিয়ে রাজ্যে করোনার প্রাণহানি হয়েছে ১০,০৪১।

বন্ধ করুন