বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > করোনা রোগীদের জন্য শতবর্ষের প্রথা ভেঙে ভারত সেবাশ্রম সংঘে প্রথম ঢুকল মাছ, মাংস
এভাবেই চিরকাল মানবসেবায় ঝাঁপিয়েছে ভারত সেবাশ্রম সংঘ (ফাইল ছবি)
এভাবেই চিরকাল মানবসেবায় ঝাঁপিয়েছে ভারত সেবাশ্রম সংঘ (ফাইল ছবি)

করোনা রোগীদের জন্য শতবর্ষের প্রথা ভেঙে ভারত সেবাশ্রম সংঘে প্রথম ঢুকল মাছ, মাংস

  • মানবতার কাছে, সেবাধর্মের কাছে কার্যত হার মানল চিরাচরিত প্রথা। প্রশংসায় ভরিয়ে দিচ্ছেন চিকিৎসকরা।

করোনাকে হারাতে যে যার মতো করে নেমেছেন লড়াইতে। সেই লড়াইতে নেমে ধীরে ধীরে শিথিল হচ্ছে ধর্মীয় অনুশাসনের বেড়া।ভয়াবহ সংকটের দিনে মানবসেবায় ঝাঁপিয়ে পড়ছেন গেরুয়াবসন পরিহিত বীর সন্ন্যাসীরাও। তাঁরা আর্তের পাশে দাঁড়িয়েও শোনাচ্ছেন ভারতের অন্তর আত্মার কথা, সেবাধর্মের কথা। সেই পথ ধরেই এবার কার্যত নজির তৈরি করল ভারত সেবাশ্রম সংঘ। এই আশ্রমে আমিষ খাবার প্রবেশের ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা ছিল। এটাই প্রথা। চিরকালীন প্রথা। এতদিন সেই প্রথা একেবারে অক্ষরে অক্ষরে মেনে চলতেন সকলেই। এবার সেই আশ্রম সংলগ্ন হাসপাতালে তৈরি হচ্ছে আমিষ খাবার। তবে সেটা কেবলমাত্র করোনা আক্রান্তদের জন্য। চিকিৎসকদের পরামর্শ মেনে তাঁদের পাতে তুলে দেওয়া হচ্ছে আমিষ খাবার।

আশ্রম সূত্রে খবর, গড়িয়া ভারত সেবাশ্রম সংঘে কোভিড হাসপাতাল খোলা হয়েছে। সেখানে ভর্তি হওয়া করোনা রোগীদের জন্য আমিষ খাবার হলে ভালো হয়। মূলত প্রোটিনের যোগান যাতে ঠিকঠাক থাকে সেজন্যই আমিষ খাবার প্রয়োজন করোনা রোগীদের জন্য। সেকারণেরই রোগীদের জন্য় এই প্রথম ১০৪ বছরের প্রথা ভেঙে আমিষ খাবার পরিবেশন করার ছাড়পত্র দিয়েছে আশ্রম কর্তৃপক্ষ। ইতিমধ্যেই চিকিৎসকরা আশ্রমের এই উদ্যোগকে প্রশংসায় ভরিয়ে দিয়েছেন। সোশ্যাল মিডিয়াতে উচ্চ প্রশংসা পাচ্ছে আশ্রমের এই উদ্যোগ। বাসিন্দাদের মতে, চিরকালই আর্তের সেবার সর্বশক্তি দিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়েছে ভারত সেবাশ্রম সংঘ। প্রাকৃতিক দুর্যোগে মানুষ যখন বিপন্ন তখনও সেই মানুষের পাশে দেখা যায় ভারত সেবাশ্রম সংঘকে। এবার করোনা বিপর্যয় দেশ জুড়ে। সেকারণেই ধর্মীয় অনুশাসনকে কিছুটা শিথিল করে মানবসেবায় ঝাঁপিয়েছে ভারত সেবাশ্রম।  

বন্ধ করুন