বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > বীরভূম বিজেপির সংগঠনে নামল ব্যাপক ধস, একসঙ্গে পদত্যাগ করলেন ৩০ জন
বিজেপি (ফাইল ছবি) (HT_PRINT)
বিজেপি (ফাইল ছবি) (HT_PRINT)

বীরভূম বিজেপির সংগঠনে নামল ব্যাপক ধস, একসঙ্গে পদত্যাগ করলেন ৩০ জন

  • একুশের নির্বাচনের পর থেকেই বিজেপির সংগঠনে ধস নামতে শুরু করে।

বিজেপিতে এখন ডামাডোল চলছে। পৃথক গোষ্ঠী তৈরি হয়েছে। মতুয়া বিধায়করা হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ থেকে লেফট হয়েছেন। বিক্ষুব্ধদের নিয়ে আলাদা করে বনভোজন পর্যন্ত হয়েছে। এবার বীরভূমের বিজেপিতে ভাঙন দেখা দিল। রাতারাতি দুবরাজপুরে বিজেপির জেলা কমিটির সদস্য–সহ মোট ৩০ জন নেতা বিজেপি সংস্রব ত্যাগ করলেন। পুরসভা নির্বাচনের আগে এই পদত্যাগ বিজেপির কাছে ধাক্কা বলে মনে করা হচ্ছে।

ঠিক কী ঘটেছে সেখানে?‌ দলীয় সূত্রে খবর, দুবরাজপুর জেলা কমিটির বেশ কয়েকজন পদত্যাগ করেছেন। এখানের শহর সভাপতি সন্দীপ আগরওয়াল, শহর সাধারণ সম্পাদক স্বরূপ আচার্য দলত্যাগ করেছেন। এছাড়া আরও ৩০ জন নেতা বিজেপি ছেড়ে দিয়েছেন। এই বিষয়ে বিজেপির জেলা কমিটির সদস্য প্রভাত চট্টোপাধ্যায় বলেন, ‘‌বিজেপির কোনও নীতি এবং উন্নয়নের পরিকল্পনা নেই। তাই আমরা একযোগে সকলে পদত্যাগ করলাম। আমরা পদ ও দল দুটোই ছেড়েছি।’‌

যদিও বীরভূমের দুবরাজপুরের বিজেপি বিধায়ক অনুপ সাহা বলেন, ‘‌পদ ছাড়লেও কেউ এখনও দল ছাড়েননি। আমরা সকলের সঙ্গে কথা বলব।’‌ আর তৃণমূল কংগ্রেসের জেলা সহ–সভাপতি মলয় মুখোপাধ্যায় বলেন, ‘‌বিজেপিতে কেউ সভ্য লোক থাকতে পারে না। সকলকে তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে স্বাগত জানাই।’‌

উল্লেখ্য, একুশের নির্বাচনের পর থেকেই বিজেপির সংগঠনে ধস নামতে শুরু করে। বিধায়ক–সাংসদ থেকে নেতা–কর্মী–সমর্থকরা বিজেপি ছাড়তে শুরু করেন। এখন পরিস্থিতি আরও জটিল হয়ে পড়েছে। খোদ সাধারণ সম্পাদক (‌সংগঠন)‌–এর নামে পোস্টার পড়তে শুরু করেছে। সম্প্রতি একইভাবে বিজেপির সংখ্যালঘু সেলের জেলা সভাপতি শেখ সামাদ–সহ জেলার সংখ্যালঘু সেলের সব মণ্ডল সভাপতি তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দিয়েছেন। এই নেতারাও তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দেবেন বলে সূত্রের খবর।

বন্ধ করুন