বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > 'মেয়েরা কেন কারও দায়িত্বে থাকবে?‌',অর্ককে ভাত-কাপড় দিলেন অর্চিতা, হয়নি কন্যাদানও
অর্কপ্রভ এবং অর্চিতা।
অর্কপ্রভ এবং অর্চিতা।

'মেয়েরা কেন কারও দায়িত্বে থাকবে?‌',অর্ককে ভাত-কাপড় দিলেন অর্চিতা, হয়নি কন্যাদানও

অর্কপ্রভের মা পাপিয়া জানান, ‘‌এখন মেয়েরা কেন কারও দায়িত্বে থাকবে?‌'

প্রচলিত রীতি নীতির বাইরে গিয়েই হয়েছে বিয়ের আচার অনুষ্ঠান। ভাত, কাপড়ের অনুষ্ঠান হয়েছে অন্যরকমভাবে। মেয়ের বাড়িতে হয়নি কন্যাদান অনুষ্ঠানও। এমনই এক ঘটনার সাক্ষী থাকল বীরভূমের সিউড়ি।

জানা গিয়েছে, গত ২১ নভেম্বর সিউড়ির ইন্দিরাপল্লির অর্কপ্রভ সিনহার সঙ্গে ডাঙালপাড়ার বাসিন্দা অর্চিতার বিয়ে হয়। সিনহা পরিবারের সদস্যরা মনে করেন, নতুন বৈবাহিক জীবন শুরুর পর থেকে দু'জনের দু'জনের প্রতি গুরু দায়িত্ব থাকে। কেবলমাত্র একজনের দায়িত্বে সংসার চলতে পারে না। তাই পরিবারের সদস্যরা সিদ্ধান্ত নেন, ছেলে যেমন তাঁর বৌমার হাতে ভাত, কাপড় উপহার তুলে দেবে, ঠিক তেমনি বৌমাও ছেলের হাতে ভাত, কাপড় ও উপহার তুলে দেবে। সিদ্ধান্ত মতো, হলও তাই।

এই প্রসঙ্গে অর্কপ্রভের মা পাপিয়া জানান, ‘‌এখন মেয়েরা কেন কারও দায়িত্বে থাকবে?‌ মেয়েরা চাকরি করুক বা না করুক, তাঁরাই রান্না করে, সংসারের দায়িত্ব নেয়। শুধুমাত্র টাকা-পয়সাই তো সংসারের সবকিছু নয়। কোনও সংসার শুরু করতে হলে দু'জনেরই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা থাকা প্রয়োজন। আমাদের অনুষ্ঠানে আমার ছেলে যেমন বৌমার হাতে ভাত, কাপড় আর উপহার তুলে দিয়েছে, ঠিক তেমনই বৌমাও ছেলের হাতে ভাত, কাপড় ও উপহারস্বরূপ একটি টেথোস্কোপ তুলে দিয়েছে।’‌ শুধু অর্কের বাড়িতে নয়, অর্চিতার বাড়িতেও প্রচলিত রীতিনীতি অনুযায়ী কন্যাদানের কোনও অনুষ্ঠান করা হয়নি।

বন্ধ করুন