বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > 'এখন হাফ বেলা বন্ধ থাকছে দোকান, পরে দিনভর হতে পারে', করোনা রুখতে কড়া পথে সিউড়ি

'এখন হাফ বেলা বন্ধ থাকছে দোকান, পরে দিনভর হতে পারে', করোনা রুখতে কড়া পথে সিউড়ি

'এখন হাফ বেলা বন্ধ থাকছে দোকান, পরে দিনভর হতে পারে', করোনা রুখতে কড়া পথে সিউড়ি

‌করোনা সংক্রমণ রুখতে এবার কড়া বিধিনিষেধের পথে হাঁটতে চলেছে বীরভূম জেলা প্রশাসন।

‌করোনা সংক্রমণ রুখতে এবার কড়া বিধিনিষেধের পথে হাঁটতে চলেছে বীরভূম জেলা প্রশাসন। এরই ফলশ্রুতি হিসাবে সিউড়ি শহরে সব দোকানপাট, হোটেল, রেস্তোরাঁ বিকেল ৫ টা থেকে সকাল ৬টা পর্যন্ত বন্ধ থাকবে। এর আগে বোলপুর শহরেও এই একই ধরনের নিয়ম কার্যকর হয়েছিল।

সিউড়ি পুরসভার প্রশাসকমণ্ডলীর চেয়ারম্যান প্রণব কর জানান, ‘‌করোনার সংক্রমণ যেহেতু বাড়ছে, তাই সেই কথা মাথায় রেখে বিকেল ৫টা থেকে পরের দিন সকাল ৬টা পর্যন্ত দোকানপাট, হোটেল, রেস্তোরাঁ সব বন্ধ থাকবে। অনির্দিষ্টকালের জন্য এই ব্যবস্থা চলবে। শুধুমাত্র জরুরি পরিষেবা চালু থাকবে। পুরসভা ও জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে এই ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।’‌ একইসঙ্গে প্রশাসকমণ্ডলী চেয়ারম্যান জানান, 'এখন হাফ বেলা বন্ধ রাখছি। প্রয়োজনে সারাদিন হয়ত বন্ধ রাখতে হতে পারে। পরিস্থিতি যেমন থাকবে, সেই অনুযায়ী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। তবে মানুষের চলাফেরা বন্ধ থাকবে না। তবে দোকানপাট বন্ধ রাখা হচ্ছে।'

এর আগে গত শনিবার বোলপুর পুরসভা এলাকায় দুপুর দুটো থেকে পরের দিন সকাল ৬টা পর্যন্ত দোকানপাট বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি দুবরাজপুর, সাঁইথিয়া পুরসভা এলাকাতেও আংশিক লকডাউন পর্ব শুরু হচ্ছে আগামী ১০ জানুয়ারি থেকে। এই দুই পুরসভা এলাকাতেই দুপুর দুটো থেকে ওষুধ ও জরুরি পরিষেবা ছাড়া বাকি দোকানপাট বন্ধ থাকবে। সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার জন্য তারপীঠেও হোটেল বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এদিন বেলা ১২টা থেকে হোটেল বন্ধ করে দেওয়া হচ্ছে। উল্লেখ্য, শনিবারের রিপোর্ট অনুযায়ী, বীরভূমে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৭০৪ জন।

বন্ধ করুন