বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > উত্তরবঙ্গ বিভাজনের প্রক্রিয়া, তিন অবিজেপি নেতার মত চাইল বিজেপি, তাঁরা কারা?
বিজেপির পতাকা (HT_PRINT)

উত্তরবঙ্গ বিভাজনের প্রক্রিয়া, তিন অবিজেপি নেতার মত চাইল বিজেপি, তাঁরা কারা?

  • বিজেপির উত্তরবঙ্গের নেতারাও এই বিভাজন চাইছেন। তাই নিয়ে বারবার নানা কথা বলছেন। পঞ্চায়েত নির্বাচন এবং লোকসভা নির্বাচনে এই ইস্যুকেই কাজে লাগাতে চাইছে বিজেপি। জন বারলাকে ভিডিয়ো বার্তার মাধ্যমে সমর্থন করেন জীবন সিং। আবার জীবন সিংয়ের ‘যুক্তিকে’ নীতিগত ভাবে সমর্থন করেন জয়ন্ত রায়।

উত্তরবঙ্গকে পৃথক জেলা বা কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল করতে চায় বিজেপি। এই বিভাজনের বিরুদ্ধে গর্জে উঠেছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সম্প্রতি বাংলা ভাগের দাবি তুলেছিলেন মাটিগাড়া–নকশালবাড়ির বিধায়ক আনন্দময় বর্মণ। এবার উত্তরবঙ্গে কেমন ‘কেন্দ্রীয় হস্তক্ষেপ’ প্রয়োজন তা নিয়ে বিজেপি নেতৃত্ব বিজেপির বিধায়ক–সাংসদদের কাছ থেকে লিখিত মতামত চেয়েছেন। আবার বিমল গুরুং, অনন্ত মহারাজ এবং জঙ্গি নেতা জীবন সিংয়ের থেকেও বিজেপি একই মতামত চেয়েছে বলে সূত্রের খবর।

বিজেপির নেতারা কী বলছেন?‌ বিজেপির উত্তরবঙ্গের নেতারাও এই বিভাজন চাইছেন। তাই নিয়ে বারবার নানা কথা বলছেন। পঞ্চায়েত নির্বাচন এবং লোকসভা নির্বাচনে এই ইস্যুকেই কাজে লাগাতে চাইছে বিজেপি। জন বারলাকে ভিডিয়ো বার্তার মাধ্যমে সমর্থন করেন জীবন সিং। আবার জীবন সিংয়ের ‘যুক্তিকে’ নীতিগত ভাবে সমর্থন করেন জয়ন্ত রায়।

বিজেপি কী জানতে চেয়েছেন? সূত্রের খবর, পৃথক রাজ্য নাকি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল অথবা বিশেষ ক্ষমতাসম্পন্ন অঞ্চল?‌ কোনটা চাইছেন তা জানতে চেয়েছেন বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। বিজেপির সাংসদ–বিধায়ক থেকে জেলা সভাপতিরা কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল চাইছেন। জয়ন্ত রায় অবশ্য বলেন, ‘‌উত্তরবঙ্গ নিয়ে আমাদের মত আমরা যথাস্থানে জানিয়েছি।’‌

ঠিক কী বলেছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী?‌ আলিপুরদুয়ারের কর্মিসভা থেকে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘রক্ত দেব, কিন্তু বাংলাকে ভাগ হতে দেব না।’ এই জীবন সিংয়ের যে ভিডিয়ো প্রকাশ্যে এসেছিল তার প্রেক্ষিতে পাল্টা চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, ক্ষমতা থাকলে আমার বুকে বন্দুক ঠেকাও। ওরকম অনেক দেখেছি। বন্দুক ভোঁতা করতে আমি জানি। ওসবে ভয় পাই না।

বন্ধ করুন