বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > দই - চিঁড়ের মেলায় মৃত্যুতে শোকপ্রকাশ শুভেন্দুর, পুলিশকে কটাক্ষ সুকান্তর
পানিহাটির দই - চিঁড়ের মেলায় তখন জমতে শুরু করেছে ভিড়।

দই - চিঁড়ের মেলায় মৃত্যুতে শোকপ্রকাশ শুভেন্দুর, পুলিশকে কটাক্ষ সুকান্তর

  • ওদিকে বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার বলেন, ‘রাজ্য প্রশাসনের ব্যর্থতায় এই মর্মান্তিক ঘটনা ঘটেছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পুলিশের একমাত্র কাজ বিজেপিকে বাধা দেওয়া। এই সরকারের চাপে পুলিশ ন্যূনতম পেশাদারিত্ব হারিয়েছে।’

পানিহাটির দণ্ড মহোৎসবে ভিড়ের চাপে ৪ জনের মৃত্যুতে শোকপ্রকাশ করলেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। একই সঙ্গে এই দুর্ঘটনার জন্য রাজ্য প্রশাসনকে দায়ী করেছেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার। এই ঘটনায় এখনো পর্যন্ত ৪ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে।

এদিন টুইটারে শুভেন্দুবাবু লেখেন, ‘পানিহাটি থেকে হৃদয়বিদারক খবর পেলাম। ইসকন মন্দিরে দণ্ডমহোৎসবে যোগ দিতে দুর্ভাগ্যবশত ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে, অসুস্থ হয়ে পড়েছেন বহু মানুষ। তাঁদের পরিবারের প্রতি অন্তরের গভীর থেকে সমবেদনা জানাই। অসুস্থদের দ্রুত সুস্থতা প্রার্থনা করি।’

ওদিকে বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার বলেন, ‘রাজ্য প্রশাসনের ব্যর্থতায় এই মর্মান্তিক ঘটনা ঘটেছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পুলিশের একমাত্র কাজ বিজেপিকে বাধা দেওয়া। এই সরকারের চাপে পুলিশ ন্যূনতম পেশাদারিত্ব হারিয়েছে।’

রবিবার পানিহাটির মহোৎসবতলায় ইসকন মন্দিরে চলছিল দণ্ড মহোৎসব। ৫০০ বছরের এই উৎসবের সঙ্গে জড়িত চৈতন্যের ঐতিহ্য। প্রতি বছর চিড়ে - দই প্রসাদ নিতে কয়েক লক্ষ মানুষ ভিড় করেন এখানে। রবিবার প্রচণ্ড গরমের মধ্যে ভিড়ে অসুস্থ হয়ে পড়তে থাকেন অনেকে। তাদের মধ্যে ৪ জনের ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয়। এই ঘটনায় অন্তত ৫০ জন অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তাদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গিয়েছে। এই ঘটনায় নিজেদের দায় ঝেড়েছে শাসকদল তৃণমূল। বারাকপুর সাংগঠনিক জেলা তৃণমূল সভাপতি পার্থ ভৌমিক বলেন, সান স্ট্রোকে মানুষ মরে গেলে আমরা কী করব?

 

বন্ধ করুন