বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > শান্তিপুরে তৃণমূল বিজেপিকে হারাতে পারবে না, মনোনয়ন পেশ করে বললেন বিজেপি প্রার্থী
মনোনয়ন পেশ করতে যাচ্ছেন নিরঞ্জন বিশ্বাস।
মনোনয়ন পেশ করতে যাচ্ছেন নিরঞ্জন বিশ্বাস।

শান্তিপুরে তৃণমূল বিজেপিকে হারাতে পারবে না, মনোনয়ন পেশ করে বললেন বিজেপি প্রার্থী

  • নদিয়া দক্ষিণে বিজেপির সাংগঠনিক সাধারণ সম্পাদক ছিলেন বিজেপি প্রার্থী নিরঞ্জন বিশ্বাস। এছাড়াও দীর্ঘদিন সংঘের স্বয়ংসেবক ছিলেন তিনি।

শান্তিপুর উপ-নির্বাচনে মনোনয়নপত্র জমা দিলেন বিজেপি প্রার্থী নিরঞ্জন বিশ্বাস। RSS-এর পুরনো কর্মী নিরঞ্জনবাবুর কাছে এই আসন ধরে রাখা বড় চ্যালেঞ্জ। আর মনোনয়ন জমা দিয়েই তিনি বললেন, এখানে তৃণমূলের পক্ষে বিজেপিকে হারানো অসম্ভব।

এদিন রানাঘাট মহকুমা শাসকের দফতরে মনোনয়ন পেশ করে নিরঞ্জনবাবু বলেন, ‘শান্তিপুর বিধানসভার উপ-নির্বাচনে তৃণমূলের পক্ষে বিজেপিকে হারানো অসম্ভব। শান্তিপুর বিধানসভায় কংগ্রেস বলতে কিছুই নেই। সিপিএম যতই প্রার্থী দিক না কেন গোটা রাজ্য জুড়ে যখন শূন্য শান্তিপুর বিধানসভার উপনির্বাচনেও শূন্যই থাকবে’।

এদিন মনোনয়ন পেশের সময় প্রার্থীর সঙ্গে ছিলেন নদিয়া দক্ষিণের বিজেপির সাংগঠনিক সভাপতি অশোক চক্রবর্তী-সহ কয়েকশো বিজেপি কর্মী সমর্থক।

নদিয়া দক্ষিণে বিজেপির সাংগঠনিক সাধারণ সম্পাদক ছিলেন বিজেপি প্রার্থী নিরঞ্জন বিশ্বাস। এছাড়াও দীর্ঘদিন সংঘের স্বয়ংসেবক ছিলেন তিনি। শান্তিপুরের প্রার্থী তালিকা নিয়ে যথেষ্ট টালবাহানা চলছিল বিজেপির অন্দরে। যদিও শেষ হাসি হাসেন নিরঞ্জনবাবু।

গত বিধানসভা নির্বাচনে শান্তিপুর আসন থেকে জয়ী হন রানাঘাটের বিজেপি সাংসদ জগন্নাথ সরকার। নিয়ম অনুসারে একই ব্যক্তি একই সঙ্গে সাংসদ ও বিধায়ক থাকতে পারেন না। এর পর বিধায়কপদ ছেড়ে দেন জগন্নাথবাবু। যার জেরে সেখানে উপ-নির্বাচন আসন্ন হয়ে পড়ে।

 

বন্ধ করুন