বাড়ি > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > প্রকাশ্যে BJP কর্মীদের পা ভেঙে দেওয়ার নিদান, অনুব্রতর বিরুদ্ধে দায়ের হল অভিযোগ
অনুব্রত মণ্ডল। ফাইল ছবি
অনুব্রত মণ্ডল। ফাইল ছবি

প্রকাশ্যে BJP কর্মীদের পা ভেঙে দেওয়ার নিদান, অনুব্রতর বিরুদ্ধে দায়ের হল অভিযোগ

  • বিজেপির অভিযোগকে গুরুত্ব দিতে রাজি নয় তৃণমূল। তাদের দাবি, বিধানসভা নির্বাচনের আগে অনুব্রত মণ্ডলের সক্রিয়তাকে ভয় পেয়েছে বিজেপি।

প্রকাশ্য সভায় উসকানিমূলক মন্তব্য করায় বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলের বিরুদ্ধে FIR করল বিজেপি। সোমবার বীরভূমের মল্লারপুর থানায় এই অভিযোগ দায়ের করেছেন বিজেপির জেলা সাধারণ সম্পাদক অতনু চট্টোপাধ্যায়। গত ১৫ জুলাই এক সভায় অনুব্রত প্রকাশ্যে বিজেপি কর্মীদের পা ভেঙে দেওয়ার অভিযোগ করেছিলেন বলে দাবি করা হয়েছে ওই অভিযোগে। অভিযোগকে গুরুত্ব দিতে নারাজ তৃণমূল। 

বিজেপির দাবি, গত ১৫ জুলাই বীরভূমের মল্লারপুরে এক কর্মীসভায় রেশন দুর্নীতি নিয়ে বিক্ষোভকারী বিজেপি কর্মীদের মেরে পা ভেঙে দিতে বলেছিলেন অনুব্রত। সেদিন অনুব্রত বলেন, ‘তোদের ওখানে না কি বিজেপি ঝামেলি করছে? হাত নেই না কি তোদের? মেরে পা ভেঙে দিবি। মুখে আমি যাই বলি, কাজ বন্ধ রাখবি না।’

এই বক্তব্যের জন্য অনুব্রত মণ্ডলের বিরুদ্ধে মল্লারপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে বিজেপি। সঙ্গে ওই সভায় করোনা প্রতিরোধে সামাজিক দূরত্ব বিধি মানা হয়নি বলে দাবি করা হয়েছে। 

বিজেপির অভিযোগকে গুরুত্ব দিতে রাজি নয় তৃণমূল। তাদের দাবি, বিধানসভা নির্বাচনের আগে অনুব্রত মণ্ডলের সক্রিয়তাকে ভয় পেয়েছে বিজেপি। বিজেপির অনেক নেতা নিজেকে অনুব্রত মণ্ডল প্রমাণ করার চেষ্টা করছেন। এসব করে লাভ হবে না। বীরভূমে অনুব্রতর জনপ্রিয়তার ধারেকাছে পৌঁছতে পারবে না কেউ। 

তবে এবারই প্রথম নয়, এর আগেও একাধিকবার অনুব্রত মণ্ডলের বিরুদ্ধে উসকানিমূলক মন্তব্য করার অভিযোগ উঠেছে। ২০১৩ সালে পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে প্রকাশ্য সভায় নির্দল প্রার্থীদের বাড়িতে বোম মারার নিদান দিয়েছিলেন তিনি। এর পর এক নির্দল প্রার্থী হৃদয় ঘোষের বাড়িতে সশস্ত্র হামলা চালায় তৃণমূল। গুলিতে মৃত্যু হয় হৃদয়ের বাবা সাগর ঘোষের।

 

বন্ধ করুন