বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > তৃণমূল কর্মীকে 'বাবা' বলে ডাকতে অস্বীকার বিজেপি নেতার, পরিণতিতে কপালে জুটেছে মার
আক্রান্ত বিজেপির বুথ সভাপতি (প্রতীকী ছবি)
আক্রান্ত বিজেপির বুথ সভাপতি (প্রতীকী ছবি)

তৃণমূল কর্মীকে 'বাবা' বলে ডাকতে অস্বীকার বিজেপি নেতার, পরিণতিতে কপালে জুটেছে মার

  • মুখ্য়মন্ত্রীর কাছে কাতর আর্জি বিজেপির আক্রান্ত বুথ সভাপতির, 'আপনি শুধু তৃণমূলের নয়, রাজ্যবাসীর মুখ্যমন্ত্রী, পদক্ষেপ করুন'

তাকে 'বাবা' বলে ডাকার জন্য বিজেপির এক বুথ সভাপতিকে নির্দেশ দিয়েছিলেন স্থানীয় এক তৃণমূল কর্মী। এমনটাই দাবি বিজেপির বুথ সভাপতির। কিন্তু সেই নামে তাঁকে ডাকতে অস্বীকার করেন বিজেপির বুথ সভাপতি সাগর পণ্ডিত।এরপরই তাঁকে বেধড়ক মারধর করে মাথা ফাটিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে তৃণমূলের ওই কর্মীর বিরুদ্ধে। পূর্ব বর্ধমানের বৈকুণ্ঠপুর পঞ্চায়েতের শ্রীরামপুর এলাকার এই ঘটনাকে ঘিরে ব্যাপক শোরগোল এলাকা। কিন্তু কেন আচমকা  বাবা ডাকতে হবে তৃণমূল কর্মীকে। আক্রান্ত বিজেপির বুথ সভাপতি সাগর পণ্ডিতের অভিযোগ, ভোটের ফল ঘোষণার পর থেকেই আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কায় তিনি ঘর ছেড়ে অন্যত্র আশ্রয় নেন। এরপর সম্প্রতি স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্ব ও পুলিশের সহযোগিতায় তিনি গ্রামে ফেরেন। কিন্তু বুধবার কাজে যাওয়ার পথে বিমান ঘোষ নামে ওই তৃণমূল কর্মী তাঁকে আটকায়। এরপরই শুরু হয় তাঁর হেলমেট খুলে বেধড়ক মার। তাঁর মাথা ফাটিয়ে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ।

এদিকে আক্রান্ত বিজেপির বুথ সভাপতি বলেন, ‘বিমান ঘোষ নাকি এলাকার বাপ। সেকারণে ওকে বাবা বলে ডাকতে বলেছিল। কিন্তু সেটা মানিনি। তাতেই ওর রাগ।’ এরপরই মুখ্য়মন্ত্রীর কাছে তাঁর কাতর নিবেদন, ‘দিদি আপনি কেবল তৃণমূলের মুখ্যমন্ত্রী নন। গোটা রাজ্যবাসীর মুখ্যমন্ত্রী। আপনার উপরই রাজ্যবাসীর সুরক্ষা। আপনি দয়া করে এব্যাপারে পদক্ষেপ করুন।’ গোটা ঘটনায় পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করেছেন আক্রান্ত বিজেপি কর্মী। তবে তৃণমূল নেতৃত্বের দাবি, এই ঘটনার সঙ্গে তৃণমূল যুক্ত নয়। ব্যক্তিগত কোনও কারণে কিছু ঘটে থাকতে পারে। মিথ্যা অভিযোগ করা হচ্ছে। 

 

বন্ধ করুন