বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ‘‌আমিও তো দীর্ঘদিন ধরে মার খাচ্ছি....‌’‌, নীরব থাকার পণ ভেঙে মুখ খুললেন দিলীপ ঘোষ

‘‌আমিও তো দীর্ঘদিন ধরে মার খাচ্ছি....‌’‌, নীরব থাকার পণ ভেঙে মুখ খুললেন দিলীপ ঘোষ

দিলীপ ঘোষ।

বিজেপির অনেক নেতা–কর্মী তো বটেই, তাঁর হার মেনে নিতে পারেনি শাসকদলের নেতারাও। দিলীপ ঘোষের হারে দুঃখপ্রকাশ করেন ফিরহাদ হাকিম। হারের পর দলের কয়েকজনের বিরুদ্ধে কাঠিবাজি এবং ষড়যন্ত্রের অভিযোগ তুলেছিলেন দিলীপ। তারপর ক্ষণিকের ‘বিরতি’। রাজ্য–রাজনীতিতে নীরবতা। সংবাদমাধ্যমের সামনে মুখ খুলবেন না বলে ‘পণ’ করেন।

লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির ভরাডুবি হয়েছে। নিজেও হেরেছেন বর্ধমান–দুর্গাপুর কেন্দ্র থেকে। তারপর থেকেই দলের রাজ্য নেতৃত্ব সম্পর্কে বারবার ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন তিনি। তাতে অস্বস্তি বেড়ে যায় বঙ্গ–বিজেপি নেতৃত্বের। এমন অবস্থায় যান নয়াদিল্লিতে। সেখান থেকে ফিরে এসেই বলেছিলেন, সংবাদমাধ্যমের সামনে আর কোনও কথা বলবেন না। এবার থেকে নীরব থাকবেন। এমনই পণ করেছিলন তিনি। হ্যাঁ, তিনি দিলীপ ঘোষ। কিন্তু আজ, সোমবার প্রাতঃভ্রমণে বেরিয়ে নিজের পণ ভেঙে আবার সংবাদমাধ্য়মের সামনে মুখ খুললেন দিলীপ ঘোষ। দলের বিরুদ্ধে কিছু না বললেও ভোট পরবর্তী হিংসা নিয়ে দিলীপ ঘোষ শোনালেন নিজের রাজনৈতিক জীবনের কথা।

বিজেপির অনেক নেতা–কর্মী তো বটেই, তাঁর হার মেনে নিতে পারেনি শাসকদলের নেতারাও। দিলীপ ঘোষের হারে দুঃখপ্রকাশ করেন ফিরহাদ হাকিম। হারের পর দলের কয়েকজনের বিরুদ্ধে কাঠিবাজি এবং ষড়যন্ত্রের অভিযোগ তুলেছিলেন দিলীপ। তারপর ক্ষণিকের ‘বিরতি’। রাজ্য–রাজনীতিতে নীরবতা। সংবাদমাধ্যমের সামনে মুখ খুলবেন না বলেও ‘পণ’ করেন। কয়েকদিনের ব্যবধানের পর আবার জনসংযোগ করতে শুরু করলেন বিজেপি নেতা দিলীপ ঘোষ। এখন বিজেপির কাছে বড় ইস্যু ভোট পরবর্তী হিংসা। দলের কর্মী–সমর্থকরা মার খাচ্ছেন বলে অভিযোগ বিজেপি নেতাদের। এই আবহে দিলীপ ঘোষ বললেন, ‘‌আমিও তো দীর্ঘদিন ধরে রাজনীতি করছি, মার খাচ্ছি, তবুও করছি।’‌

আরও পড়ুন:‌ ‘‌দলগুলি ঠিক করবে স্পিকার কে হবেন’‌, এনডিএ সরকারের সাংসদ হয়ে ধোঁয়াশায় ওম বিড়লা

ইতিমধ্যেই বাংলা এসে হাজির হয়েছেন বিজেপির চার সদস্যের কেন্দ্রীয় দল। সেখানে চারজন সাংসদ আছেন। ভোট পরবর্তী হিংসা নিয়ে খতিয়ে দেখতে এসেছেন তাঁরা। আজ, সোমবার সকালে ওই টিম গিয়েছে কোচবিহারে। আর সোমবার পুরনো বিজেপি কর্মীদের সঙ্গে নিয়ে দুর্গাপুরের সিটি সেন্টার এলাকায় প্রাতঃভ্রমণ করলেন দিলীপ ঘোষ। তারপরই চা চক্রে যোগদান করে স্থানীয় বয়স্ক বেশ কয়েকজনের সঙ্গে আড্ডা দেন। তখনই সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে বলেন, ‘‌এখনও হিংসা চলছে। তিনি বিভিন্ন জায়গায় যাচ্ছেন। পুলিশকেও বলা হয়েছে। তবে নির্বাচনের পরে এই ধরনের ঘটনা ঠিক নয়। ধীরে ধীরে সমস্ত কিছুই স্বাভাবিক হবে।’‌

রবিবার সন্ধ্যায় রাজ্যপাল সিভি আনন্দ বোসের সঙ্গে দেখা করেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। তিনি সঙ্গে আক্রান্তদের নিয়ে যান রাজভবনে। আর মাহেশ্বরী ভবনে এসে হাজির হন বিজেপির কেন্দ্রীয় টিম। তাঁরা ইতিমধ্যেই নানা কথা বলেছেন। আর ভোট পরবর্তী হিংসা নিয়ে দিলীপ ঘোষের বক্তব্য, ‘‌এরকম পরিস্থিতি চলবে, সেরকম নয়। আমরা এত বছর ধরে রাজনীতি করছি, মার খাচ্ছি, কিন্তু করছি। এতগুলি ছেলে বাড়িছাড়া রয়েছে, কিছু করতে হবে। ব্যক্তিগত কথা ভেবে তো রাজনীতি করা যায় না। তবে পরিস্থিতি বদলাবে।’‌

বাংলার মুখ খবর

Latest News

স্বামী, শাশুড়ি, ননদ সকলেই প্রাক্তন, তবু চারু বলছেন, তাঁদেরকেই ভালোবাসেন... 'লোকে আমায় এখনো মেয়েবাজ, চিটিংবাজ বলে', অকপট রণবীর, মেয়ের বাবা হয়েও স্বভাব… একঝলকে টেস্ট ফরম্যাটে উইন্ডিজের গত পাঁচটি বড় ইনিংসের তথ্য... সীমান্তে বন্ধ বাণিজ্য, উত্তাল বাংলাদেশের প্রভাব পড়ল আমদানি–রফতানিতে স্নেহাশিস-অর্পিতার বিয়েতে থাকছেন না সৌরভ! দাদা দ্বিতীয় বিয়ে নিয়ে অখুশি মহারাজ? তিন ফরম্যাটে ভারত অধিনায়ক হিসেবে সবচেয়ে বেশি রান কাদের? ‘‌এটা বাংলা-দেশের অস্তিত্ব রক্ষার সভা’‌, প্রস্তুতি দেখে ধর্মতলায় বার্তা মমতার বাংলাদেশে মহিলা T20 WC-এর নিরাপত্তা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন, পরিস্থিতিতে চোখ রাখছে ICC হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে পরিচালক অনিন্দিতা সর্বাধিকারী, হল অস্ত্রোপচার আগামিকাল কেমন কাটবে আপনার? ভাগ্য থাকবে কি পাশে? জানুন ২১ জুলাইয়ের রাশিফল

Copyright © 2024 HT Digital Streams Limited. All RightsReserved.