বাড়ি > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > স্বাধীনতা দিবসে পতাকা তুলতে বাধা, না মানায় বিজেপি নেতাকে মারধর তৃণমূলের
প্রতীকি ছবি
প্রতীকি ছবি

স্বাধীনতা দিবসে পতাকা তুলতে বাধা, না মানায় বিজেপি নেতাকে মারধর তৃণমূলের

  • আহত অবস্থায় প্রদীপবাবুকে সোনারপুর গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চোট গুরুতর হওয়ায় কলকাতায় রেফার করেন চিকিৎসরকরা।

দক্ষিণ ২৪ পরগনার নরেন্দ্রপুরে স্বাধীনতা দিবসে বিজেপি নেতাকে জাতীয় পতাকা তুলতে বাধা দেওয়ার অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে। তৃণমূলের হুমকির পরও তিনি পতাকা তোলার আয়োজন করলে তাঁর ওপর হামলা হয় বলে অভিযোগ। আহত বিজেপি নেতা প্রদীপ বালাকে চিকিৎসার জন্য কলকাতায় স্থানান্তরিত করা হয়েছে। 

ঘটনার সূত্রপাত শনিবার সকালে। এদিন বাড়ির সামনেই জাতীয় পতাকা উত্তোলনের আয়োজন করছিলেন নরেন্দ্রপুর থানা এলাকার খেয়াদহ গ্রাম পঞ্চায়েতের বিজেপি নেতা প্রদীপ বালা। অভিযোগ, সেই সময় স্থানীয় তৃণমূলের একদল কর্মী এসে বলেন, পতাকা তোলা যাবে না। পতাকা তুলতে হলে তুলতে হবে তৃণমূলের সঙ্গে। তৃণমূলের হুমকিতে বিরত না হয়ে পতাকা তোলার আয়োজন চালিয়ে যান তিনি। অভিযোগ, এর পর লাঠি, শাবল ও রড দিয়ে প্রদীপবাবুর ওপর হামলা চালায় তৃণমূলি দুষ্কৃতীরা। অভিযোগ, মারধর করা হয়েছে বিজেপি নেতার পরিবারের অন্যান্য সদস্যদেরও। 

আহত অবস্থায় প্রদীপবাবুকে সোনারপুর গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চোট গুরুতর হওয়ায় কলকাতায় রেফার করেন চিকিৎসরকরা।

ঘটনায় তৃণমূলের যোগের কথা অস্বীকার করেছে দলের স্থানীয় নেতৃত্ব। তাদের দাবি, পতাকা তোলা নিয়ে স্থানীয় ২টি গোষ্ঠীর মধ্যে বিবাদ হয়েছে বটে কিন্তু তার সঙ্গে তৃণমূলের কোনও যোগ নেই। বিজেপির অভিযোগ, স্বাধীনতা দিবসেও সন্ত্রাস কায়েম করতে চায় তৃণমূল।

বন্ধ করুন