বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ঘরমুখো রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়, ঘরছাড়াদের তালিকা পাঠালেন বিজেপি রাজ্য দফতরে
রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়। (ছবি সৌজন্য ফেসবুক)
রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়। (ছবি সৌজন্য ফেসবুক)

ঘরমুখো রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়, ঘরছাড়াদের তালিকা পাঠালেন বিজেপি রাজ্য দফতরে

  • এবার ডোমজুড়ের বিজেপি প্রার্থী শনিবার লোক মারফত ঘরছাড়াদের তালিকা পাঠালেন বিজেপির রাজ্য দফতরে।

একুশের নির্বাচনের ফলপ্রকাশের পর থেকে ঘরমুখো থেকেছেন বিজেপি নেতা রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়। দলের কর্মসূচি–বৈঠকে তাঁকে দেখা যায়নি। বরং তৃতীয়বারের জন্য নির্বাচিত সরকারের সমালোচনার বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছিলেন তিনি। সোশ্যাল মিডিয়ায় বিজেপির বিরুদ্ধেই তোপ দেগেছিলেন। তাঁকে নিয়ে জল্পনা বাড়ে কুণাল ঘোষের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ–কে ঘিরে। এবার ডোমজুড়ের বিজেপি প্রার্থী শনিবার লোক মারফত ঘরছাড়াদের তালিকা পাঠালেন বিজেপির রাজ্য দফতরে। সঙ্গে সঙ্গে প্রশ্ন উঠে গেল, তাহলে কী এখন ঠাঁই হল না তৃণমূল কংগ্রেসে?‌ তাই বিজেপিতেই কাজে মন দিলেন?‌

একুশের নির্বাচনের পর পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের মাতৃবিয়োগ ঘটে। তাঁর সঙ্গেও দেখা করেন রাজীব। অথচ খাতায় কলমে তিনি এখনও বিজেপি নেতা। আগামী ২৯ জুন রাজ্য বিজেপির বৈঠকে আমন্ত্রণও পেয়েছেন। শনিবার ডোমজুড়ের পরাজিত বিজেপি প্রার্থী ঘরছাড়া কর্মীদের তালিকা পাঠান দলীয় কার্যালয়ে। কিন্তু এতকিছুর পর আবার উদ্যোগী ভূমিকা নিতে দেখা যেতেই চর্চা শুরু হয়েছে। নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক রাজ্য বিজেপির এক নেতা বলেন, ‘‌অনেকেই তলে তলে ক্ষমতার অলিন্দে ফিরতে চাইছেন। সেই খবর আমরা রাখি। আর যাঁরা পারছেন না তাঁরা থেকে যাচ্ছেন। আমাদের দরজা খোলাই রয়েছে। যেতে চাইলে আটকানো হবে না। রাজীব তার ব্যতিক্রম নন।

সূত্রের খবর, তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্য সম্পাদক কুণাল ঘোষের বাড়িতে গিয়ে পুরনো দলে ফেরার আগ্রহ প্রকাশ করেছিলেন রাজীব। কিন্তু এখনও ফুল–বদল নিয়ে ইতিবাচক সাড়া পাননি বলে খবর। সম্প্রতি নেটমাধ্যমে রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় ফেসবুক, টুইটারে লিখেছিলেন, ‘‌সমালোচনা তো অনেক হল... মানুষের বিপুল জমসমর্থন নিয়ে আসা নির্বাচিত সরকারের সমালোচনা ও মুখ্যমন্ত্রীর বিরোধিতা করতে গিয়ে কথায় কথায় দিল্লি, আর ৩৫৬ ধারার জুজু দেখালে বাংলার মানুষ ভালোভাবে নেবে না।’‌

বন্ধ করুন