বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > বিজেপি নেতার দোকান ভাঙল তৃণমূল নেতা বলে অভিযোগ, বীরভূমে তুলকালাম
দোকান ভাঙা হয়েছে বলে অভিযোগ।

বিজেপি নেতার দোকান ভাঙল তৃণমূল নেতা বলে অভিযোগ, বীরভূমে তুলকালাম

  • এই ঘটনায় বিজেপি নেতার দাবি, তাঁকে বারবার তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করার জন্য চাপ দেওয়া হয়। কিন্তু তিনি দলবদল করেননি। শাসকদলের রোষানলে পড়ায় এই দোকান ভাঙা হয়েছে। তাই তৃণমূল কংগ্রেস নেতা দাঁড়িয়ে থেকে তাঁর দোকান ভেঙেছেন। এই নিয়ে প্রশাসনকে অভিযোগ জানিয়েও লাভ হয়নি।

স্থানীয় বিজেপি নেতার দোকান ভেঙে দিলেন তৃণমূল কংগ্রেস নেতা বলে অভিযোগ। বিজেপি করার অপরাধে এই কাজ করা হয়েছে বলে বিজেপি নেতার অভিযোগ। এই দোকান ভাঙার কোনও নির্দেশ আদালত দেয়নি। আদালতের নির্দেশ অমান্য করে দোকান ভাঙা হয়েছে বলে অভিযোগ। এমনকী তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা দাঁড়িয়ে থেকে ওই দোকান ভাঙেন বলে অভিযোগ। মঙ্গলবার এই ঘটনায় উত্তেজনা ছড়িয়েছে বীরভূম জেলার আমোদপুর এলাকায়। এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে তৃণমূল কংগ্রেস।

ঠিক কী ঘটেছে বীরভূমে?‌ স্থানীয় সূত্রে খবর, বীরভূমের আমোদপুরের বাসিন্দা পরী মণ্ডল পেশায় ব্যবসায়ী। এমনকী এলাকায় বিজেপি নেতা হিসাবে পরিচিত। সোমবার রাতে তাঁর দোকান ভেঙে দেয় কেউ বা কারা। বিজেপি নেতার অভিযোগ, তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি রাজীব ভট্টাচার্য এই কাজের সঙ্গে জড়িত। এই দোকান দীর্ঘদিনের। এই দোকান নিয়ে বাড়ির মালিকের সঙ্গে দোকান মালিকের সঙ্গে সমস্যা হয়। বাড়ির মালিক আদালতের দ্বারস্থ হন। আদালত দোকান না ভাঙার নির্দেশ দিয়েছে।

ঠিক কী অভিযোগ বিজেপি নেতার?‌ এই ঘটনায় বিজেপি নেতার দাবি, তাঁকে বারবার তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করার জন্য চাপ দেওয়া হয়। কিন্তু তিনি দলবদল করেননি। শাসকদলের রোষানলে পড়ায় এই দোকান ভাঙা হয়েছে। তাই তৃণমূল কংগ্রেস নেতা দাঁড়িয়ে থেকে তাঁর দোকান ভেঙেছেন। এই নিয়ে প্রশাসনকে অভিযোগ জানিয়েও লাভ হয়নি।

কী বলছেন তৃণমূল কংগ্রেস নেতা?‌ এই ঘটনায় তৃণমূল কংগ্রেস নেতা রাজীব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তিনি জানান, সাদা কাগজের উপর লেখা হয়েছিল, পরী মণ্ডলকে নতুন দোকান দেওয়া হবে। তবে দোকান ভাঙার সঙ্গে তৃণমূল কংগ্রেস জড়িত নয়। তবে উনি যখন অভিযোগ করছেন তখন গোটা বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে।

বন্ধ করুন