বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > যোগাযোগ রাখছেন বিজেপি বিধায়করাও, দলবদলুদের জন্য কী ভাবছে তৃণমূল? জানালেন অভিষেক
 অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়, তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক (ফাইল ছবি)
 অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়, তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক (ফাইল ছবি)

যোগাযোগ রাখছেন বিজেপি বিধায়করাও, দলবদলুদের জন্য কী ভাবছে তৃণমূল? জানালেন অভিষেক

  • ঠিক ভোটের মুখে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে ভিড়ে গিয়েছিলেন অনেকেই। তাঁদের অনেকেই এখন কার্যত সুবিধা করতে না পেরে তৃণমূলে ফেরার জন্য একেবারে আবেদন নিবেদন শুরু করেছেন 

ভোটের আগে তৃণমূল ছাড়ার জন্য একেবারে হিড়িক পড়ে গিয়েছিল। বিজেপি ক্ষমতা আসছে এটা ধরে নিয়েই একেবারে দলে দলে গেরুয়া শিবিরে ভিড়ে গিয়েছিলেন তৃণমূলের অনেকেই। এবার তৃণমূল ক্ষমতায় ফিরতেই সেই দলবদলুরা পুরানো দলে জায়গা পাওয়ার জন্য নানা সুর গাইতে শুরু করে দিয়েছেন। সোমবার সেই দলত্যাগীদের জন্যই তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বিশেষ বার্তা দিলেন। এর সঙ্গেই বিজেপিও রক্তচাপ কার্যত বাড়িয়ে দিলেন তিনি। এদিন তিনি বলেন, ‘শুধু দলত্যাগীরাই নন, বিজেপির বিধায়করাও যোগাযোগ রাখছেন। অনেকে ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন বিজেপির অনেক বিধায়ক যারা জিতেছেন তাঁরাও আসতে চাইছেন। দলের চেয়ারপার্সন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপর ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।কাকে নেওয়া হবে, কাকে নেওয়া হবে না। পরবর্তী ওয়ার্কিং কমিটির মিটিংয়ে আলোচনা করে, সর্বস্তরে পর্যালোচনা করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’ 

 

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, এবার একটাই প্রশ্ন খোদ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যাঁর প্রতি সদয় হবেন তিনিই ফিরতে পারবেন তৃণমূলে। গোটাটাই নির্ভর করছে মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায়ের উপর। এখানেই প্রশ্ন উঠছে যাঁরা ভোটের আগে মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায়ের সরকারকে ফেলতে একেবারে উঠেপড়ে লাগলেন তাঁদের দলে নেওয়াটা কতটা যুক্তিযুক্ত হবে? এদিকে ইতিমধ্যেই দলের নীচুতলায় এনিয়ে ব্যাপক প্রতিক্রিয়া শুরু হয়েছে। দলও কার্যত এনিয়ে দ্বিধাবিভক্ত। অনেকেই যে আখের গোছানোর জন্য বিজেপিতে গিয়েছিলেন এটাও কার্যত পরিষ্কার। তবে রাজনৈতিক মহলের মতে, মমতার দীর্ঘদিনের একাধিক নেতৃত্বকে ফের দলে ফেরানো হতে পারে। এনিয়েও নানা মহল থেকে ইঙ্গিত ক্রমে স্পষ্ট হচ্ছে। 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

বন্ধ করুন