বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > 'বেসুরো' গাইছেন রায়গঞ্জের বিজেপি বিধায়ক, দলের কাজ থেকে দূরত্ব রাখার বার্তা
বিজেপি বিধায়ক কৃষ্ণ কল্যাণী। (ফাইল ছবি)
বিজেপি বিধায়ক কৃষ্ণ কল্যাণী। (ফাইল ছবি)

'বেসুরো' গাইছেন রায়গঞ্জের বিজেপি বিধায়ক, দলের কাজ থেকে দূরত্ব রাখার বার্তা

  • তাঁর দাবি, ‘জেলা কমিটির গঠন আমাকে না জানিয়েই করা হয়েছে।

শনিবারই তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন কালিয়াগঞ্জের বিজেপি বিধায়ক সৌমেন রায়। এবার ঠিক তার পাশের বিধানসভাকেন্দ্র রায়গঞ্জের বিজেপি বিধায়ক কৃষ্ণ কল্য়াণীর গলায় এবার বেসুরো আওয়াজ। দলের সমস্ত কর্মসূচি থেকে বিরত থাকার কথা জানিয়ে দিলেন কৃষ্ণ কল্যানী। তবে বিধায়ক হিসাবে তিনি কাজ চালিয়ে যাবেন বলে জানিয়েছেন। কিন্তু কেন আচমকা দলের সমস্ত কর্মসূচি থেকে বিরত থাকার কথা জানালেন কৃষ্ণ কল্যাণী? আসলে উত্তর দিনাজপুর জেলার বিজেপি সভাপতি বাসুদেব সরকারের সঙ্গে মতবিরোধের কারণেই তিনি দলের কর্মসূচি থেকে দূরত্ব রাখার কথা জানিয়েছেন। পাশাপাশি সাংসদ দেবশ্রী চৌধুরীর বিরুদ্ধেও সুর চড়িয়েছেন তিনি। তবে কৃষ্ণ কল্যাণীর এই বার্তাকে ঘিরে এবার তাঁর তৃণমূলের যোগ নিয়েও জল্পনাও ছড়িয়েছে।

কিন্তু এরপর ঠিক কী পদক্ষপ নেবেন কৃষ্ণ কল্য়াণী? সেব্যাপারেও জল্পনা জিইয়ে রেখেছেন তিনি। তাঁর দাবি, ‘জেলা কমিটির গঠন আমাকে না জানিয়েই করা হয়েছে। ভবিষ্যতে কী হবে তা ভবিষ্যৎই বলবে। বাসুদেব সরকার সকলকে নিয়ে চলছেন না। তিনি মুষ্টিমেয় কয়েকজনকে নিয়ে চলছেন।’ এভাবেই দলের জেলা সভাপতির বিরুদ্ধেও মুখ খোলেন তিনি। এদিকে কৃষ্ণ কল্যাণীর এই বেসুরো আওয়াজকে ঘিরে দলের অন্দরে রীতিমতো শোরগোল পড়ে গিয়েছে। তাঁকে আদৌ আর বিজেপিতে ধরে রাখা যাবে কি না তা নিয়েও যথেষ্ট সংশয়ে জেলা বিজেপির একাংশ। আর এই দলে ধরে রাখা প্রসঙ্গে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, গরু ছাগল তো নয় যে আটকে রাখব। 

 

বন্ধ করুন