বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Subhas Sarkar: ‘রামধোলাই দিয়ে গ্রামছাড়া করুন’, আবাস নিয়ে নিদান দিয়ে বিতর্কে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী

Subhas Sarkar: ‘রামধোলাই দিয়ে গ্রামছাড়া করুন’, আবাস নিয়ে নিদান দিয়ে বিতর্কে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী

বাঁকুড়ার বিজেপি সাংসদ ডাঃ সুভাষ সরকার। 

এইসব অভিযোগে বাংলার বিরোধীরা সরব হয়েছে। অভিযোগ উঠেছে, যাঁর দোতলা বাড়ি রয়েছে, তাঁর হাতেও গিয়েছে আবাস যোজনার টাকা। এই নিয়ে কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছে বিজেপি। তার মধ্যেই আবাস দুর্নীতি নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করেছেন কেন্দ্রীয় শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী ডাঃ সুভাষ সরকার।

প্রধানমন্ত্রীর আবাস যোজনায় দুর্নীতি নিয়ে কিছু অভিযোগ উঠেছে। তবে তার সত্যতা যাচাই করেনি কোনওপক্ষই। তার মধ্যেই দুর্নীতি হচ্ছে বুঝলেই দুর্নীতিবাজকে ‘রামধোলাই’ দেওয়ার নিদান দিলেন বাংলার কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ডাঃ সুভাষ সরকার। আর এই নিয়ে আলোড়ন পড়ে গিয়েছে। দু’‌দিন আগেই বিজেপি বিধায়ক শীতল কপাট এই ইস্যু নিয়ে আদালতের দুয়ারে যাবেন বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন। ঠিক তার পরেই বিজেপি সাংসদের মারধর করার নিদান গ্রামে উস্কানি তৈরি করেছে বলে মনে করা হচ্ছে। যা নিয়ে জোর চর্চা শুরু হয়েছে।

ঠিক কী বলেছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী?‌ আবাস যোজনার দুর্নীতি নিয়ে বাঁকুড়ার বিজেপি সাংসদ মঙ্গলবার প্রকাশ্যেই বলেন, ‘মিথ্যা কথা বলার একমাত্র শাস্তি উত্তম–মধ্যম। ওরা এসে মিথ্যা কথা বললেই রামধোলাই দিয়ে গ্রাম থেকে বিদায় করুন।’ যদিও কেন্দ্রের পক্ষ থেকে চাপিয়ে দেওয়া শর্ত মেনে লক্ষ্যপূরণ করেছে বাংলা। হাতে সময় ছিল মাত্র ৩৬ দিন। সব শর্ত মেনে যাচাই পর্ব শেষ করার পর ১১ লক্ষ বাড়ি তৈরির অনুমোদন দিতে হত ৩১ ডিসেম্বর তারিখের মধ্যে। এবার সেই টার্গেট ছুঁয়ে ফেলেছে বাংলা। তারপরও এমন নিদান বিতর্কের সৃষ্টি করেছে।

ঠিক কী অভিযোগ উঠেছে?‌ প্রধানমন্ত্রীর কেন্দ্রীয় আবাস যোজনায় বাড়ি তৈরির টাকা যোগ্যরা পাচ্ছে না। উল্টে অযোগ্যদের দিয়ে দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ। এমনকী তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা–নেত্রীরা বাড়ি বানিয়ে নিচ্ছেন বলেও অভিযোগ ওঠে। এইসব অভিযোগে বাংলার বিরোধীরা সরব হয়েছে। অভিযোগ উঠেছে, যাঁর দোতলা বাড়ি রয়েছে, তাঁর হাতেও গিয়েছে আবাস যোজনার টাকা। এই নিয়ে কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছে বিজেপি। তার মধ্যেই আবাস দুর্নীতি নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করেছেন কেন্দ্রীয় শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী ডাঃ সুভাষ সরকার।

ঠিক কী বলছে তৃণমূল কংগ্রেস?‌ বিজেপি সাংসদ তথা কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রীর মন্তব্যের পাল্টা তৃণমূল কংগ্রেস সাংসদ শান্তনু সেন বলেন, ‘এই কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রীর সুপারিশেই বিজেপি বিধায়ক নীলাদ্রিশেখর দানার পরিবারের সদস্যরা কল্যাণী এইমসে নিয়ম ভেঙে চাকরি পেয়েছেন। তিনি কিনা দুর্নীতি নিয়ে কথা বলছেন! বিজেপি বরাবরই হিংসার রাজনীতি করে এসেছে। যে ভাষায় তারা বুকে পা তুলে দেওয়ার কথা বলে, ত্রিশূলে রক্ত মাখানোর কথা বলে, সেই ভাষাতেই কেন্দ্রীয় মন্ত্রীও কথা বলেছেন। এতে বিস্মিত হচ্ছি না।’

বন্ধ করুন