বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ‘‌উনি আমার গুরুজন আছেন’‌, অধীররঞ্জন চৌধুরীর প্রশংসায় পঞ্চমুখ অর্জুন সিং
সাংসদ অর্জুন সিং
সাংসদ অর্জুন সিং

‘‌উনি আমার গুরুজন আছেন’‌, অধীররঞ্জন চৌধুরীর প্রশংসায় পঞ্চমুখ অর্জুন সিং

  • এবার পুরসভা নির্বাচনের আগে এই কংগ্রেস নেতাকেই বিজেপিতে আহ্বান জানালেন ব্যারাকপুরের বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং।

দু’‌জনেই সাংসদ। প্রতিপক্ষ দুই দলের নেতা। একজন ২০১৯ সালে দল পরিবর্তন করেছেন। আর একজন টানা একই দলে থেকে গিয়েছেন কঠিন পরিস্থিতিতেও। হ্যাঁ, একজন বিজেপির সাংসদ অর্জুন সিং। অপরজন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি তথা বহরমপুরের সাংসদ অধীররঞ্জন চৌধুরী। যিনি লোকসভায় বিরোধী দলের নেতা হয়েছিলেন। এবার এই ডাকাবুকো অধীরবাবুর প্রশংসায় পঞ্চমুখ হলেন বিজেপির সাংসদ তথা রাজ্য সহ সভাপতি অর্জুন সিং। অধীরের খাসতালুক বহরমপুরে দাঁড়িয়ে কংগ্রেস সাংসদকে বিজেপিতে আহ্বান জানিয়ে অর্জুন সিং বলেন, ‘‌উনি গুরুদেব লোক আছেন।’‌

২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনের পর সংসদ ভবনের বাইরে দেখা গিয়েছিল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী পিঠ চাপড়ে অধীরের সম্পর্কে বলছেন, একেবারে বাঘের বাচ্চা। তারপর কেটে গিয়েছে অনেকগুলি প্রহর। অধীর চৌধুরী বিজেপিতে যোগ দিতে পারেন বলে একবার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন দিলীপ ঘোষও। এবার পুরসভা নির্বাচনের আগে এই কংগ্রেস নেতাকেই বিজেপিতে আহ্বান জানালেন ব্যারাকপুরের বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং। এমনকী সাংবাদিক বৈঠকে অধীর চৌধুরী সম্পর্কে অর্জুনের মন্তব্য, ‘‌তিনি একজন অভিজ্ঞ ব্যক্তি, আমার গুরুদেব আছে।’‌

ঠিক কী বলেছেন বিজেপি সাংসদ?‌ অর্জুন সিংয়ের এই মন্তব্যে এখন রাজ্য–রাজনীতি তোলপাড়। তিনি বলেন, ‘‌কাল অনেকের সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। বহরমপুর আর সেই অধীরবাবুর বহরমপুর নেই। বিজেপি অনেকটা জায়গা তৈরি করে নিয়েছে। আশা করি অধীরদা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে চিন্তাধারা রাখেন। ওঁনার পার্টি রাখে কিনা জানি না। সেই জন্য অধীরবাবুকে আমরা আহ্বান করব যেন আমাদের সাপোর্ট করেন। যাতে এই নির্বাচনে আমরা ভাল ফল করতে পারি।’‌

এরপরই শোনা যায় সেই প্রশাংসা। যেখানে অর্জুন সিং বলছেন, ‘অধীরদার মতো লোক, যিনি এখনও এমপি, ওঁনাকে স্বাগত না জানিয়ে আমি কি খারাপ কথা বলতে পারি! উনি আমার গুরুজন আছেন, সিনিয়র লিডার। হয়তো আলাদা দল করেন কিন্তু ওঁনাকে শ্রদ্ধা করি। রাজনীতির বাইরেও কোনও মানুষের প্রতি কোনও মানুষের শ্রদ্ধা জন্মাতেই পারে। প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটলবিহারী বাজপেয়ি বিজেপির লোক হলেও অনেকে তাঁকে শ্রদ্ধা করেন।’‌

বন্ধ করুন