বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Soumitra Khan: ‘‌সবাইকে মানিক ভট্টাচার্য করে দেব’‌, হুমকি সৌমিত্রের ‘‌পাগল–ছাগল’‌ পাল্টা কুণাল

Soumitra Khan: ‘‌সবাইকে মানিক ভট্টাচার্য করে দেব’‌, হুমকি সৌমিত্রের ‘‌পাগল–ছাগল’‌ পাল্টা কুণাল

সৌমিত্র খাঁ। (ছবি, সৌজন্য ফেসবুক @saumitrakhanOfficial)

পূর্ব বর্ধমানের খণ্ডঘোষে গিয়েছিলেন বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ। সেখানের অনুষ্ঠান থেকে তৃণমূল কংগ্রেসকে তুলোধোনা করেন তিনি। দুর্নীতি ইস্যুতে আক্রমণ করেন পুলিশ–প্রশাসনকে। আজ, রবিবার সৌমিত্রের মন্তব্যের পাল্টা জবাব দিয়েছেন তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্য সম্পাদক কুণাল ঘোষ।‌

কয়েকদিন আগে কুণাল ঘোষকে মামা বলে সম্বোধন করেছিলেন বিজেপির সাংসদ সৌমিত্র খাঁ। এমনকী তাঁকে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার আহ্বান করেছিলেন। এবার আবার বেফাঁস মন্তব্য করলেন বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ। পুলিশ–প্রশাসনের আধিকারিকদের নিশানা করে আজ রবিবার বলেন, ‘‌দু্র্নীতিতে যুক্ত প্রত্যেককে মানিক ভট্টাচার্য করে দেব।’‌ পালটা জবাব দিয়েছেন তৃণমূল কংগ্রেসের মুখপাত্র কুণাল ঘোষ।

ঠিক কী বলেছেন সৌমিত্র খাঁ?‌ পূর্ব বর্ধমানের খণ্ডঘোষে গিয়েছিলেন বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ। সেখানের অনুষ্ঠান থেকে তৃণমূল কংগ্রেসকে তুলোধোনা করেন তিনি। দুর্নীতি ইস্যুতে আক্রমণ করেন পুলিশ–প্রশাসনকে। আজ, রবিবার তিনি বলেন, ‘‌কিছু কিছু থানার ওসি বালি কেলেঙ্কারিতে যুক্ত। কোটি কোটি টাকা দুর্নীতি হয়েছে। আমি মুখ্যসচিবকে চিঠি পাঠিয়েছি। জেলা প্রশাসনের যারা বালি পাচারে যুক্ত, তাঁদের প্রত্যেকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সবাইকে মানিক ভট্টাচার্য করে দেব। মানিকবাবুকে যেভাবে লুকিয়ে বেড়াতে হচ্ছে, দুর্নীতিতে যুক্ত সবাইকে সেভাবে পালাতে হবে।’‌

ঠিক কী বলেছেন কুণাল ঘোষ? আজ, রবিবার সৌমিত্রের মন্তব্যের পাল্টা জবাব দিয়েছেন তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্য সম্পাদক কুণাল ঘোষ।‌ সৌমিত্রের মন্তব্যকে গুরুত্ব দিতে নারাজ তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্য সম্পাদক তথা মুখপাত্র কুণাল ঘোষ। তাই তিনি বলেন, ‘‌পাগল–ছাগল অনেক কিছু বলে থাকে। গুরুত্ব দেওয়ার কারণ নেই।’‌ আজ আবার সৌগত রায় বিজেপিরে আক্রমণ করে বলেছেন, ‘‌কয়েকটা বাঁদর আছে যারা বিজেপি করে।’‌

উল্লেখ্য, নিয়োগ দুর্নীতির অভিযোগে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা তলব করেছিল তৎকালীন সভাপতি মানিক ভট্টাচার্য। মাঝে গুঞ্জন ছড়াল পাওয়া যাচ্ছে না মানিক ভট্টাচার্যকে। এমনকী তাঁর বিরুদ্ধে লুকআউট নোটিশ জারি করা হল। তাঁর নিরাপত্তা প্রত্যাহার করে নিল রাজ্য পুলিশ। পরে যাদবপুরের বাড়ির বারান্দায় এসে তিনি জানালেন, আছেন কলকাতাতেই। পালাননি।

বন্ধ করুন