বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ছড়াচ্ছে ‘সংক্রমণ’, এবার দলীয় হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ 'লিভ' বীরভূমের দুই BJP নেতার
বিজেপির পতাকা (HT_PRINT)
বিজেপির পতাকা (HT_PRINT)

ছড়াচ্ছে ‘সংক্রমণ’, এবার দলীয় হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ 'লিভ' বীরভূমের দুই BJP নেতার

  • বুধবার সন্ধ্যায় বিজেপির হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ ছাড়লেন বীরভূমের দুই হেভিওয়েট গেরুয়া নেতা।

হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ লিভ করার রোগ দ্রুতই বিজেপির সব স্তরে ছড়িয়ে পড়ছে। সম্প্রতি একাধিক বিধায়ক, কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী দলকে অস্বস্তিতে ফেলে হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ ছেড়েছেন। বঙ্গ বিজেপির ছিন্নভিন্ন চিত্র জনসমক্ষে আসতেই কটাক্ষ করতে ছাড়েনি তৃণমূল। এই আবহে এবার বিজেপির হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ ছাড়লেন বীরভূমের দুই হেভিওয়েট গেরুয়া নেতা। জানা গিয়েছে, বিজেপির বীরভূম জেলার সহ সভাপতি উত্তমকুমার রজক এবং জেলা সম্পাদক অরিন্দম মুখোপাধ্যায় বুধবার সন্ধ্যায় দলের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ ছাড়েন।

সূত্রের খবর, বীরভূমে বিজেপির জেলা সভাপতি ধ্রুব সাহার সঙ্গে দ্বন্দ্বের জেরেই বীরভূম জেলার সহ সভাপতি, জেলা সম্পাদকের এই হোয়াটসঅ্যপ গ্রুপ লিভের সিদ্ধান্ত। এর আগে এর আগে মল্লারপুরের জেলা সম্পাদক এবং জেলা সংখ্যালঘু সেলের সভাপতিও হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ ছেড়েছিলেন। তবে বিজেপির অন্দরে এই ‘বিদ্রোহে’র আঁচ শুধুমাত্র বীরভূমেই সীমিত নয়। গতবছরের শেষ লগ্নেই হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ লিভ জ্বরে আক্রান্ত হয় বিজেপি। ‘লেফট’ তালিকায় একে একে নাম লিখিয়েছেন, বাঁকুড়ার চার বিজেপি বিধায়ক, বনগাঁর পাঁচ বিধায়ক, কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী শান্তনু ঠাকুর, খড়্গপুরের বিধায়ক হিরণ চট্টোপাধ্যায়, যুব নেতা শঙ্কুদেব পণ্ডারা।

বিজেপির অন্দরে এই বিদ্রোহের অন্যতম কারণ হিসেবে সাংগঠনিক রদবদলকে মনে করা হচ্ছে। সাংগঠনিক জেলার নতুন সভাপতির নামের তালিকা প্রকাশ প্রকাশের পর থেকেই হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ ছেড়ে নিজেদের অসন্তোষের কথা প্রকাশ করছেন গেরুয়া শিবিরের নেতারা। এই আবহে বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদারের বিরুদ্ধে নালিশ জমা পড়েছে জেপি নড্ডার কাছে। আবার সুকান্ত-শুভেন্দুরাও নাকি দিলীপ ঘোষের প্রতি অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের কাছে। অবশ্য, বীরভূম জেলার সহ সভাপতি উত্তমকুমার রজক এবং জেলা সম্পাদক অরিন্দম মুখোপাধ্যায় ঠিক কী কারণে হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ ত্যাগ করেছেন, সেই বিষয়ে কোনও স্পষ্ট ধারণা মেলেনি। দলের তরফে এই বিষয়ে কিছু বলা হয়নি। উত্তমকুমার, অরিন্দমরাও এই বিষয়ে কোনও শব্দ খরচ করতে নারাজ।

বন্ধ করুন