বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > মুখে কাপড় গুঁজে ধর্ষণ নাবালিকাকে, সহযোগিতায় গাইঘাটার বিজেপি নেত্রী, গ্রেফতার চার
মুখে কাপড় গুঁজে দিয়ে তাকে ধর্ষণ করা হয়। প্রতীকী ছবি।

মুখে কাপড় গুঁজে ধর্ষণ নাবালিকাকে, সহযোগিতায় গাইঘাটার বিজেপি নেত্রী, গ্রেফতার চার

  • এক যুবক তাকে একটি ক্যামেরা দেখানোর নাম করে ঘরে নিয়ে যায়। নাবালিকাকে বাড়িতে অনেকক্ষণ দেখতে না পেয়ে তার বাবা খুঁজতে বের হন। প্রতিবেশী পূর্ণিমা দেবীর বাড়িতে জোরে গান বাজছে শুনে সন্দেহ হয়। তখন নির্যাতিতার বাবা সেখানে গিয়ে এক যুবককে মেয়ের সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় দেখতে পান।

একদিকে হাঁসখালি ধর্ষণ কাণ্ডে বিজেপির ফ্যাক্ট ফাইন্ডিং টিম এসে রিপোর্ট দিচ্ছে, অন্যদিকে ধর্ষণে সাহায্য করছেন বিজেপি নেত্রী। এমনই চাঞ্চল্যকর অভিযোগ উঠেছে গাইঘাটায়। নাবালিকার বয়স ১৫। তাকে ধর্ষণে সাহায্যের অভিযোগে এবার গ্রেফতার হলেন এক বিজেপি নেত্রী–সহ চারজন। বৃহস্পতিবার এই ঘটনাটি ঘটেছে গাইঘাটা এলাকায়।

ঠিক কী ঘটেছে গাইঘাটায়?‌ স্থানীয় সূত্রে খবর, ধর্ষণকারীর হাত থেকে নিজেকে বাঁচানোর আপ্রাণ চেষ্টা করেছিল ওই নাবালিকা। কিন্তু সেখানে তাকে সাহায্য না করে উলটে ওই মেয়েটির মুখে কাপড় গুঁজে দিয়ে তাকে ধর্ষণ করা হয়। আর এই ঘটনায় সাহায্য করার অভিযোগ উঠেছে এলাকার এক বিজেপি নেত্রীর বিরুদ্ধে। ইতিমধ্যেই চারজনকে এই ঘটনায় গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

কারা এই কাজে জড়িত?‌ পুলিশ সূত্রে খবর, ধৃতদের নাম বাসুদেব বিশ্বাস, শুভঙ্কর মিস্ত্রি, পূর্ণিমা সরকার এবং অর্পণ সরকার। আজ শুক্রবার ধৃতদের বনগাঁ মহকুমা আদালতে তোলা হবে। ১৫ বছর বয়সী ওই নির্যাতিতার বাড়ি গাইঘাটার চড়ুইগাছি এলাকায়। ধৃত পূর্ণিমা সরকার নাবালিকার প্রতিবেশী। পূর্ণিমা দেবীর বাড়িতে নবদ্বীপের কানাইনগর দক্ষিণ পাড়া থেকে দুই আত্মীয় আসে কয়েকদিন আগে। সেই দু’‌জনই হল ধৃত বাসুদেব বিশ্বাস এবং শুভঙ্কর মিস্ত্রি।

কী অভিযোগ করছে নির্যাতিতার পরিবার?‌ পরিবার সূত্রে খবর, এক যুবক তাকে একটি ক্যামেরা দেখানোর নাম করে ঘরে নিয়ে যায়। নাবালিকাকে বাড়িতে অনেকক্ষণ দেখতে না পেয়ে তার বাবা খুঁজতে বের হন। প্রতিবেশী পূর্ণিমা দেবীর বাড়িতে জোরে গান বাজছে শুনে সন্দেহ হয়। তখন নির্যাতিতার বাবা সেখানে গিয়ে এক যুবককে মেয়ের সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় দেখতে পান। বাবাকে দেখে মেয়ে কান্নাকাটি শুরু করে। নাবালিকার অভিযোগ, জোর করে তাকে ধর্ষণ করা হয়েছে। এরপর নির্যাতিতার বাবা পূর্ণিমা দেবী–সহ চারজনের নামে গাইঘাটা থানায় ধর্ষণ ও ধর্ষণের সহযোগিতার অভিযোগ দায়ের করেন।

বন্ধ করুন