বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > বিবাহ বহিভূত সম্পর্কের জেরেই খুন বিজেপি কর্মী, পুলিশি তদন্তে উঠে এল তথ্য
প্রতীকী ছবি
প্রতীকী ছবি

বিবাহ বহিভূত সম্পর্কের জেরেই খুন বিজেপি কর্মী, পুলিশি তদন্তে উঠে এল তথ্য

  • গত মঙ্গলবার রাত থেকে নিখোঁজ ছিল বিজেপি কর্মীর দেহ। এরপর বুধবার সকালে পিড়খালি খালের কাছে কৃষ্ণের রক্তাক্ত দেহ উদ্ধার হয়।

‌বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের জেরেই খুন হতে হয়েছে ময়নার বিজেপি কর্মীকে। সম্প্রতি পুলিশি তদন্তে এমন তথ্যই উঠে এসেছে। তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পেরেছে, নিতান্ত দাদা–ভাইয়ের মধ্যে বিবাদ। বৌদিকে ঘিরে দাদা ও ভাইয়ের মধ্যে বিবাদ। আর এই বিবাদের জেরেই খুন। এর সঙ্গে রাজনীতির কোনও সম্পর্ক নেই।

পুলিশ সূত্রে খবর, ময়নায় বিজেপি কর্মী খুনের ঘটনায় বিজেপি কর্মীর ভাই ও তাঁর স্ত্রীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পেরেছে, বিজেপি কর্মী কৃষ্ণ পাত্রের স্ত্রী রূপালির সঙ্গে ভাই বলরামের বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক ছিল। এই নিয়ে দুই পরিবারের মধ্যে বিবাদ ছিল। সেই বিবাদের জেরেই খুন। কৃষ্ণ পাত্র ও তাঁর ভাই বলরাম দুজনেই ইটভাটায় কাজ করতেন। কৃষ্ণ পাত্র ইট ভাটায় কাজ করার সঙ্গে সঙ্গে এলাকায় বিজেপি কর্মী হিসাবেও পরিচিত। স্ত্রী, দুই মেয়ে ও এক ছেলেকে নিয়ে থাকতেন কৃষ্ণ। উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার রাত থেকে নিখোঁজ ছিল বিজেপি কর্মীর দেহ। এরপর বুধবার সকালে পিড়খালি খালের কাছে কৃষ্ণের রক্তাক্ত দেহ উদ্ধার হয়।

ঘটনার পর থেকেই রাজনীতির রং লাগতে শুরু করে। রাজ্যের প্রাক্তন বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ জানিয়েছিলেন, কৃষ্ণ যেহেতু রাজনীতি করে, তাই ধরেই নিচ্ছি তাঁকে রাজনৈতিক কারণে খুন করা হয়েছে। যা হচ্ছে, তা ঠিক হচ্ছে না। ভয় দেখিয়ে কাজ না হওয়ায় একের পর এক কর্মীকে খুন করা হচ্ছে।বিজেপি যতই রাজনীতির রং লাগানোর চেষ্টা করুক না কেন, এই ঘটনার সঙ্গে যে রাজনীতির কোনও যোগ নেই, পুলিশের বক্তব্য থেকেই তার প্রমাণ। এই প্রসঙ্গে অবশ্য টিপ্পনি কাটতে ছাড়েনি তৃণমূল। তৃণমূলের তরফে জানানো হয়েছে, হালে পানি পেতে হাওয়া গরম করার চেষ্টা করছে বিজেপি।

বন্ধ করুন