বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > বিজেপি কর্মীর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার, খুন নাকি আত্মহত্যা?‌ চাঞ্চল্য কোচবিহারে
কোচবিহারে বিজেপি সমর্থকের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)
কোচবিহারে বিজেপি সমর্থকের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)

বিজেপি কর্মীর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার, খুন নাকি আত্মহত্যা?‌ চাঞ্চল্য কোচবিহারে

  • এটা কী খুন?‌ নাকি আত্মহত্যা?‌ এই প্রশ্নে তোলপাড় হয়ে গিয়েছে গোটা জেলা।

ইয়াস ঘূর্ণিঝড় থামতেই বিজেপি কর্মীর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হল কোচবিহারে। আর তাকে ঘিরে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ল কোচবিহারের সিতাইয়ে। এটা কী খুন?‌ নাকি আত্মহত্যা?‌ এই প্রশ্নে তোলপাড় হয়ে গিয়েছে গোটা জেলা। বিজেপি এটাকে খুন বলে দাবি করলেও তা মানতে নারাজ তৃণমূল কংগ্রেস। তাছাড়া গোটা ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রে খবর, কোচবিহার জেলার সিতাই বিধানসভা কেন্দ্রের আদাবাড়ী গ্রাম পঞ্চায়েতের হোকোদহ গ্রামের অনিল বর্মন নামে এক বিজেপি কর্মীর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয় বাড়ির পাশ থেকে। রবিবার সকালে পরিবারের সদস্যরা অনিলবাবুর ঝুলন্ত দেহ দেখতে পান। অভিযোগ, বিধানসভা নির্বাচনের ফল ঘোষণার পর তৃণমূল কংগ্রেস আশ্রিত দুষ্কৃতীরা তার বাড়িতে ব্যাপক ভাঙচুর চালায় এবং লুটপাট করে।

বিজেপির অভিযোগ, দীর্ঘদিন তিনি শাসকদলের অত্যাচারে বাড়ির বাইরে ছিলেন। গত তিন–চারদিন হলো তিনি বাড়িতে ফিরে এসেছেন। সেই খবর চাউর হতেই এই ঘটনা ঘটেছে। বেশ কিছুদিন ধরে তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে তাকে চাপ দেওয়া হচ্ছিল যাতে তিনি তৃণমূল কংগ্রেস যোগদান করেন। কিন্তু তিনি তৃনমুল কংগ্রেসে যোগদান করেননি। সেই রাগেই অমিলবাবুকে খুন করে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে। তবে প্রকৃত ঘটনা কি তা তদন্ত করে দেখছে পুলিশ।

বন্ধ করুন