বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > মদ কিনতে গিয়ে মাথায় পড়ল ধারালো অস্ত্রের কোপ, বিজেপি করার জেরেই ঘটল!
মদ বিক্রি করার বদলে মাথায়. ধারালো অস্ত্রের কোপ। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)
মদ বিক্রি করার বদলে মাথায়. ধারালো অস্ত্রের কোপ। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)

মদ কিনতে গিয়ে মাথায় পড়ল ধারালো অস্ত্রের কোপ, বিজেপি করার জেরেই ঘটল!

  • বচসা এমন পর্যায়ে পৌঁছয় যে, বসিয়ে দেওয়া হল ধারালো অস্ত্রের কোপ।

মদ কেনাবেচায় আবার রাজনীতি!‌ অবাক হলেও এটাই বাস্তব। মদ কেনাবেচায় বিজেপি–তৃণমূল কংগ্রেস উঠে এলো। এমনকী তার জেরে পড়ল ধারালো অস্ত্রের কোপ। বিজেপি সমর্থক বলে মদ তাঁকে দেওয়া যাবে না। বিক্রেতার এমন নিদান শুনে শুরু হয় বচসা। বচসা এমন পর্যায়ে পৌঁছয় যে, বসিয়ে দেওয়া হল ধারালো অস্ত্রের কোপ। এমনই ঘটনার অভিযাগ উঠল খানাকুল ১ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের রামচন্দ্রপুর গ্রামে। এই অস্ত্রের কোপে জখম হয়েছেন ৩ জন। তাদের মধ্যে দুজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

ঠিক কী ঘটেছে?‌ জানা গিয়েছে, নাগাড়ে বৃষ্টি পড়ছে দেখে মদ্যপান করার পরিকল্পনা করেন তিনজন বিজেপি কর্মী–সমর্থক। তখন তাঁরা মদের বোতল কিনতে দোকানে যান। সেখানে গিয়ে মদ কিনতে চাইলে তাঁদের বলা হয়, মদ বিক্রি নেই। তখন তাঁরা পাল্টা প্রশ্ন করেন, কেন নেই?‌ দোকানির উত্তর, বিজেপি কর্মী–সমর্থকদের মদ বিক্রি করা হবে না। তখনই বচসা বেঁধে যায়। আক্রান্তদের অভিযোগ, তখনই তাদের উপরে হামলা চালিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস সমর্থকরা। এই অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে শাসকদলের তরফে। তবে পুলিশ এই ঘটনায় চারজনকে গ্রেফতার করেছে।

পুলিশ সূত্রে খবর, স্থানীয়দের থেকে এই গোলমালের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যাওয়া হয়। সেখানে আহত উত্তম দোলুই, বিশ্বজিৎ দোলুই, চূড়মনি ধাড়া–সহ বেশ কয়েকজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এদের মধ্যে উত্তম দোলুই এবং বিশ্বজিৎ দোলুইকে আরামবাগ মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আর চারজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে খবর, মঙ্গলবার রাতে এই ঘটনা ঘটেছে। আক্রান্তদের দাবি, বিজেপি করি বলেই মদ কিনতে গিয়ে কোপের মুখ পড়তে হয়েছে। মদ বিক্রি করার বদলে আমাদের মাথায়. ধারালো অস্ত্রের কোপ দেওয়া হয়। যদিও তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে অভিযোগ, এলাকার কয়েকজন যুবক মদ খেয়ে মাতলামি করছিল। মদ খেয়ে চিৎকার করছিল। নিজেদের মধ্যে মারপিট করেই এই ঘটনা ঘটিয়েছে তাঁরা। এখন তৃণমূল কংগ্রেসের নাম জড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে। এখানে কোনও রাজনীতির রং নেই।

বন্ধ করুন