বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ‌ফের বোমা বিস্ফোরণ গলসিতে
নিজস্ব চিত্র
নিজস্ব চিত্র

‌ফের বোমা বিস্ফোরণ গলসিতে

  • নির্মীয়মাণ বাড়িতে রাখা বালির স্তুপের নীচে প্লাস্টিকের জারের মধ্যে বোমাগুলি মজুত ছিল।কোনও কারণে সেই মজুত বোমায় বিস্ফোরণ হয়।

ভোটের আগে ফের বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটল গলসিতে। গত রবিবার এই এলাকায় আটপাড়ায় বোমা ফাটে।এরপর মঙ্গলবার সকালে ওই এলাকায় রায়পুর গ্রামে একটি নির্মীয়মাণ বাড়িতে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। পরপর এভাবে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটায় এলাকায় আতঙ্কের পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে।

প্রাথমিকভাবে পুলিশ জানতে পেরেছে, নির্মীয়মাণ বাড়িতে রাখা বালির স্তুপের নীচে প্লাস্টিকের জারের মধ্যে বোমাগুলি মজুত ছিল। কোনও কারণে সেই মজুত বোমায় বিস্ফোরণ হয়। বিস্ফোরণে নির্মীয়মাণ বাড়ির পাঁচিল ভেঙে যায়। বিস্ফোরণের পর ঘটনাস্থলে যায় বোমা বিশেষজ্ঞরা।বিস্ফোরণের তীব্রতা পরীক্ষা করে দেখা হয়্। জানা গিয়েছে, ওই নির্মীয়মান বাড়িটি স্থানীয় বাসিন্দা শেখ রফিকুলের। রফিকুল কোনও রাজনৈতিক দলের সঙ্গে যুক্ত নন বলে পরিবারের তরফে জানানো হয়েছে। তাহলে কে বা কারা এই বোমা রেখে গেল, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

এলাকার স্থানীয় এক বাসিন্দা জানান, এতজোরে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে যে আশেপাশের ঘরবাড়ি কেঁপে ওঠে। অন্যান্যদিন ওখানে বাচ্চারা খেলতে যায়।কিন্তু আজ রোদের জন্য যায়নি।গেলে কী হত কে জানে। এই প্রসঙ্গে রফিকুলের মা শাকিলা বিবি জানান, জানি না কারা এই কাজ করেছে। তবে আমার ছেলে কোনও রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত নয়। তবে যেভাবে একের পর এক বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটছে, তাতে ইতিমধ্যে রাজনৈতিক চাপানউতোর শুরু হয়ে গিয়েছে। জেলা বিজেপি সহ–সভাপতি রমন শর্মা বলেন,‘‌ভোটের আগে মানুষকে ভয় দেখাতেই তৃণমূলই এই কাজ করছে।’‌  অন্যদিকে তৃণমূলের মুখপাত্র প্রসেনজিত দাস জানান, কে বা কারা এর পিছনে যুক্ত, পুলিশকে বলেছি খুঁজে বের করতে।

বন্ধ করুন