বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > জলের ট্যাঙ্ক থেকে নিজেই অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীর দেহ বার করলেন স্বামী
প্রতীকি ছবি
প্রতীকি ছবি

জলের ট্যাঙ্ক থেকে নিজেই অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীর দেহ বার করলেন স্বামী

  • মৃতের এক আত্মীয় জানিয়েছেন, প্রিয়াঙ্কা ৫ মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিল। ওকে খুন করে জলের ট্যাঙ্কে দেহ লুকিয়ে রেখেছিল। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় জগদ্দল থানার পুলিশ।

অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে খুন করে দেহ জলের ট্যাঙ্কে লুকিয়ে রাখার অভিযোগ উঠল স্বামীর বিরুদ্ধে। ঘটনা উত্তর ২৪ পরগনার শ্যামনগরের। মৃতের নাম প্রিয়াঙ্কা পুরকাইত (৩৩)। বুধবার এই ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়ায়। মৃতের পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে স্বামীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

পরিবারের তরফে জানানো হয়েছে ৫ বছর আগে প্রিয়াঙ্কা পুরকাইতের বিয়ে হয় শ্যামনগরের শান্তিগড়ের বাসিন্দা আবির পুরকাইতের সঙ্গে। শ্যামনগরের একটি বেসরকারি কারখানার কর্মী তিনি। কিছুদিন আগে গর্ভবতী হন প্রিয়াঙ্কা। মঙ্গলবার বিকেলে অফিস থেকে ফিরে আবিরবাবু জানান স্ত্রীকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। এর পর এলাকার মানুষজন প্রিয়াঙ্কাদেবীর খোঁজ শুরু করেন। এর পর নিজেই ছাদে উঠে যান মৃতার স্বামী। জলের ট্যাঙ্ক খুলে নিজেই স্ত্রীর দেহ প্রথম দেখতে পান। এর পরই এলাকায় উত্তেজনা ছড়ায়।

মৃতের এক আত্মীয় জানিয়েছেন, প্রিয়াঙ্কা ৫ মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিল। ওকে খুন করে জলের ট্যাঙ্কে দেহ লুকিয়ে রেখেছিল। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় জগদ্দল থানার পুলিশ। দেহটি উদ্ধার করে তারা। মৃতের পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে গ্রেফতার করে আবির পুরকাইতকে। যদিও অভিযুক্ত স্বামীর দাবি, তিনি ঘটনার ব্যাপারে কিছুই জানেন না।

 

বন্ধ করুন