বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > সাত সকালে কালভার্টের নীচে পাওয়া গেল টোটো চালকের দেহ
প্রতীকি ছবি
প্রতীকি ছবি

সাত সকালে কালভার্টের নীচে পাওয়া গেল টোটো চালকের দেহ

  • পরিবারের তরফে জানানো হয়েছে, প্রদীপবাবুর সঙ্গে ধারদেনা শোধ নিয়ে স্থানীয় এক ব্যক্তির বিবাদ চলছিল। শুক্রবার রাতে বাড়ি ফেরেননি তিনি।

সাত সকালে কালভার্টের নীচে খাল থেকে যুবকের দেহ উদ্ধার ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়াল হুগলির বেলমুড়িতে। প্রদীপ বাউল দাস (২৮) নামে ওই যুবক পেশায় টোটোচালক বলে জানা গিয়েছে। খবর পেয়ে দেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। কী ভাবে যুবকের মৃত্যু হল জানতে শুরু হয়েছে তদন্ত।

পরিবারের তরফে জানানো হয়েছে, প্রদীপবাবুর সঙ্গে ধারদেনা শোধ নিয়ে স্থানীয় এক ব্যক্তির বিবাদ চলছিল। শুক্রবার রাতে বাড়ি ফেরেননি তিনি। সারা রাত খোঁজাখুঁজি করেও ছেলের সন্ধান পাননি পরিবারের সদস্যরা। সকালে চুঁচুড়া - হরিপাল সড়কের ওপর বেলমুড়ি এলাকায় একটি কালভার্টের নীচে খালে তাঁদ দেহটি দেখতে পান স্থানীয়রা। খবর পেয়ে সেখানে পৌঁছন পরিবারের লোকজন। দেহটি প্রদীপবাবুর বলে সনাক্ত করেন তাঁরা। এর পর খবর যায় পুলিশে। পুলিশকর্মীরা এসে দেহ উদ্ধার করে ইমামবাড়া হাসপাতালে ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছেন।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, এলাকায় ভালো ছেলে বলে পরিচিত ছিলেন প্রদীপ। পারিবারিক কারণে এক ব্যক্তির কাছ থেকে কিছু টাকা ধার নিয়েছিলেন তিনি। সেই টাকা শোধ দেওয়া নিয়ে ওই ব্যক্তির সঙ্গে বিবাদ চলছিল তাঁর। তার জেরেই যুবক খুন হয়ে থাকতে পারেন বলে অনুমান পরিজনদের। কী ভাবে যুবকের মৃত্যু হল জানতে অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা দায়ের করে তদন্তে নেমেছে হরিপাল থানা।

 

বন্ধ করুন