বাড়ি > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > পণের দাবিতে বিয়ের আসরে বরপক্ষের তাণ্ডব, প্রতিবাদে শ্বশুবাড়ি যেতে নারাজ নববধূ
প্রতীকি ছবি
প্রতীকি ছবি

পণের দাবিতে বিয়ের আসরে বরপক্ষের তাণ্ডব, প্রতিবাদে শ্বশুবাড়ি যেতে নারাজ নববধূ

  • পাত্রপক্ষের পালটা দাবি, ‘বিয়ের আসরে প্রথম থেকেই বরযাত্রীদের সঙ্গে অসভ্যতা করছিলেন পাত্রীপক্ষের লোকজন।

যৌতুকে টিভি না দেওয়ায় বরপক্ষের অসভ্যতার প্রতিবাদে বিয়ের পরেও শ্বশুরবাড়ি গেলেন না নববধূ। ঘটনা পুরাতন মালদা পুরসভার মঙ্গলবাড়ির। ঘটনায় পাত্রপক্ষের বিরুদ্ধে পুলিশে অভিযোগ দায়ের করেছে পাত্রীপক্ষ।

মঙ্গলবার মঙ্গলবাড়ির বাসিন্দা ওই পাত্রীর বিয়ে হয় পুরাতন মালদারই খয়রাতি পাড়ার এক ব্যবসায়ী পাত্রের সঙ্গে। পাত্রীপক্ষের দাবি, বিয়ের আচার চলাকালীনই শুরু হয় বচসা। কেন টিভি দেওয়া হয়নি এই নিয়ে বিবাদ শুরু করে বরযাত্রীর কয়েকজন। তা থেকে ক্রমশ হাতাহাতি শুরু হয়। পাত্রীপক্ষের দাবি, আড়াই লক্ষ টাকা নগদ ছাড়াও ৮ ভরি গয়না ও গেরস্থালির যাবতীয় জিনিস পণ হিসাবে দেওয়া হয়েছে। শুধু টিভিটা কেনা হলেও পৌঁছে দেওয়া যায়নি পাত্রের বাড়ি। বিয়ে কোনও রকমে শেষ হলেও বুধবার মারকুটে শ্বশুরবাড়ি যেতে বেঁকে বসে পাত্রী।

পাত্রপক্ষের পালটা দাবি, ‘বিয়ের আসরে প্রথম থেকেই বরযাত্রীদের সঙ্গে অসভ্যতা করছিলেন পাত্রীপক্ষের লোকজন। তার প্রতিবাদ করলে বচসা বাঁধে। এর সঙ্গে পণের কোনও সম্পর্ক নেই।’ উলটে তাদের দাবি, কণেপক্ষের লোকজনই পুলিশে অভিযোগ করে ফাঁসিয়ে দেওয়ার অভিযোগ করছিল।

এই নিয়ে বুধবার পুলিশে অভিযোগ দায়ের করেছে পাত্রীপক্ষ। যদিও পাত্রের দাবি, পণের কোনও ব্যাপারই নেই। অহেতুক বিবাদে জড়িয়েছে দুপক্ষই। নববধূকে বাড়ি আনতে চায় সে।


বন্ধ করুন