বাড়ি > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > মালবাজারে ভাঙল সেতু, গর্তে গাড়ি পড়ে মৃত্যু ২ জনের
মালবাজারে ভেঙে পড়ল সেতু (ছবি সৌজন্য সংগৃহীত)
মালবাজারে ভেঙে পড়ল সেতু (ছবি সৌজন্য সংগৃহীত)

মালবাজারে ভাঙল সেতু, গর্তে গাড়ি পড়ে মৃত্যু ২ জনের

সেতু ভেঙে পড়ায় শিলিগুড়ি থেকে ডুয়ার্সের মধ্যে গাড়ি চলাচল বন্ধ হয়ে গিয়েছে।

ভেঙে পড়ল মালবাজারে বাগরাকোটের কাছে জুরন্তী সেতুর একাংশ। তার জেরে একটি পিক আপ ভ্যান গর্তে পড়ে মৃত্যু হল দু'জনের। সেতু ভেঙে পড়ায় শিলিগুড়ি থেকে ডুয়ার্সের মধ্যে ৩১ নম্বর জাতীয় সড়কে গাড়ি চলাচল বন্ধ হয়ে গিয়েছে। 

আরও পড়ুন : টানা ৫ দিন ভারতে করোনা যুদ্ধে জয়ী ৩০,০০০-র বেশি রোগী, সুস্থতার হার বেড়ে ৬৪.২%

গতরাত তিনটে অসম থেকে কলা নিয়ে শিলিগুড়িতে আসছিল পাঁচটি পিক আপ ভ্যান। সেবক এবং ওদলাবাড়ির মধ্যে বাগরাকোটের কাছে চারটি ভ্যান জুরন্তী সেতু পার হয়ে যায়। কিন্তু শেষ গাড়িটি যাওয়ার সময় সেতুর একাংশ ভেঙে পড়ে। তার জেরে গর্তে পড়ে যায় পিক আপ ভ্যানটি। চালক ও খালাসিকে দ্রুত উদ্ধার করে মালবাজার হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসকরা তাঁদের মৃত বলে ঘোষণা করেন।

আরও পড়ুন : বিশ্বে সবথেকে দ্রুতহারে করোনা বাড়ছে ভারতে, নয়া রিপোর্টে উদ্বেগ

স্থানীয়দের অভিযোগ, রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে সেতুটির একাংশ ভেঙে পড়েছে। যদিও সেতু রক্ষণাবেক্ষণের দায় কার, তা নিয়ে জাতীয় সড়ক কর্তৃপক্ষ এবং রাজ্য সরকারের মধ্যে চাপানউতোর শুরু হয়েছে। পূর্ত দফতরের দাবি, সেতুটি ৩১ নম্বর জাতীয় সড়কে অবস্থিত। তাই সেতু রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব জাতীয় সড়ক কর্তৃপক্ষের। তবে জাতীয় সড়ক কর্তপক্ষের পালটা দাবি, সেতুটি পূর্ত দফতরের ১১ নম্বর ডিভিশনের অধীনে রয়েছে। ফলে সেতুর দায়িত্ব রাজ্যের উপর বর্তায়।

আরও পড়ুন : নবম - দশমে ক্লাস হবে টেলিফোনে, খবর শিক্ষা দফতর সূত্রে

সেই চাপানউতোরের মধ্যেই ঘটনাস্থলে ইঞ্জিনিয়ারদের পাঠাচ্ছে জাতীয় সড়ক কর্তৃপক্ষ। যাচ্ছেন পূর্ত দফতরের প্রতিনিধিরাও। প্রাথমিকভাবে অনুমান, রাতভর বৃষ্টির জেরে সেতুর অ্যাপ্রোচ রোডের নীচে মাটি ধসে যায়। তার জেরে ভেঙে পড়ে ব্রিজের একাংশ।

আরও পড়ুন : ক্যান্সারকে হারিয়ে মাঠে ফেরার অনুপ্রেরণা জোগান সচিন, কৃতজ্ঞতা জানালেন যুবরাজ সিং

এদিকে, রাতভর প্রবল বৃষ্টির জেরে শিলিগুড়ির দাগাপুর এলাকায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে পঞ্চনই নদীর সেতু। পাশাপাশি পাতিকলোনির কাছে একটি অস্থায়ী সেতুর একাংশ ভেঙে পড়ে। মাটিগাড়া ও প্রধাননগরের সংযোগকারী সেই সেতু বন্ধ থাকায় মাটিগাড়া থেকে ঘুরপথে শিলিগুড়ি যেতে হচ্ছে। মঙ্গলবার সকালে দুটি সেতুই ভেঙে পরিদর্শন করেন প্রশাসনের কর্তারা। তাঁরা জানিয়েছে, ব্রিজে মেরামতিতে কিছুটা সময় লাগবে।

বন্ধ করুন