বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > বাংলাদেশে কাফ সিরাপ পাচারের চেষ্টা, BSF-র গুলিতে মুর্শিদাবাদে মৃত ১ পাচারকারীর
বাংলাদেশে কাফ সিরাপ পাচারের চেষ্টা, সীমান্তে BSG-র গুলিতে মৃত্যু ১ পাচারকারীর। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্যে পিটিআই)

বাংলাদেশে কাফ সিরাপ পাচারের চেষ্টা, BSF-র গুলিতে মুর্শিদাবাদে মৃত ১ পাচারকারীর

  • এক বিএসএফ অফিসার বলেন, 'পাচারকারীরা পাথর ছুড়তে শুরু করে এবং ধারালো অস্ত্র নিয়ে আমাদের দিকে ছুটে আসে। পাচারকারীদের সাধারণ অস্ত্র নিয়ে হটিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করা হয়েছিল। কিন্তু তাতে কোনও প্রভাব পড়েনি। তারপর ইনসাস রাইফেল থেকে এক জওয়ান গুলি ছোড়েন। রুহুলের ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয়।'

শ্রেয়সী পাল

এক সন্দেহভাজন পাচারকারীকে খতম করল বিএসএফ। রবিবার ভোররাতে কয়েকজন সহযোগীর সঙ্গে ওই ব্যক্তি বাংলাদেশে কাফ সিরাপ পাচার করছিল বলে অভিযোগ করা হয়েছে।

সীমান্তরক্ষী বাহিনীর ১৪১ নম্বর ব্যাটেলিয়নের অফিসাররা জানিয়েছেন, সাগরপাড়ার সীমান্তবর্তী এলাকার চৌকির কাছে সেই ঘটনাটি ঘটেছে। ৫৩২ বোতল ফেনসিডিল বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। মৃত ব্যক্তির নাম রুহুল মণ্ডল (৩৫)। তিনি স্থানীয় গ্রামের বাসিন্দা ছিলেন। তবে রুহুলের প্রায় ১৫ জন সহযোগী পালিয়ে গিয়েছে। 

আরও পড়ুন: Birbhum: গাঁজা, অস্ত্র পাচার মামলায় ধৃত সিভিক ভলান্টিয়ার

নাম গোপন রাখার শর্তে এক বিএসএফ অফিসার বলেছেন, ‘গোয়েন্দা সূত্রে আমরা খবর পেয়েছিলাম যে সাগরপাড়া সীমান্ত চৌকি লাগোয়া এলাকা থেকে ফেনসিডিল পাচার করা হবে। তারপর এলাকায় নজরদারি বাড়িয়ে দেওয়া হয়।’ সঙ্গে তিনি বলেন, 'আমরা পাচারকারীদের দেখতে পেয়ে থেমে যেতে বলি। কিন্তু ওরা পাথর ছুড়তে শুরু করে এবং ধারালো অস্ত্র নিয়ে আমাদের দিকে ছুটে আসে। পাচারকারীদের সাধারণ অস্ত্র নিয়ে হটিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করা হয়েছিল। কিন্তু তাতে কোনও প্রভাব পড়েনি। তারপর ইনসাস রাইফেল থেকে এক জওয়ান গুলি ছোড়েন। ঘটনাস্থলেই রুহুলের মৃত্যু হয়।'

যদিও রুহুলের পরিবারের দাবি, পাচার চক্রের সঙ্গে তাঁর কোনও যোগ ছিল না। রুহুলের বৌদি বলেন, 'সীমান্তের চৌকির কাছে আমাদের ১০ বিঘার মতো কৃষিজমি আছে। সেখানে প্রতিদিন যেতেন রুহুল। সেইসময় পাচারকারীদের লক্ষ্য করে বিএসএফ জওয়ানদের চালানো গুলি লাগে রুহুলের শরীরে। অপরাধীদের শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।'

আরও পড়ুন:  Birbhum: গাঁজা, অস্ত্র পাচার মামলায় ধৃত সিভিক ভলেন্টিয়ার

সাগরপাড়া থানার এক আধিকারিক জানিয়েছেন, রবিবার বিকেল পর্যন্ত পরিবারের তরফে কোনও অভিযোগ দায়ের করা হয়নি। ময়নাতদন্তের জন্য মৃতদেহ পাঠানো হয়েছে।

বন্ধ করুন