বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ব্যবসায়ীর উপর ক্লাবের চাঁদার জুলুমের অভিযোগ, বাড়ি ভাঙচুর হাওড়ায়
হামলার পর ঘটনাস্থলে তদন্তে পুলিশ। (নিজস্ব চিত্র )
হামলার পর ঘটনাস্থলে তদন্তে পুলিশ। (নিজস্ব চিত্র )

ব্যবসায়ীর উপর ক্লাবের চাঁদার জুলুমের অভিযোগ, বাড়ি ভাঙচুর হাওড়ায়

  • পুলিশে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। গোটা পরিবার আতঙ্কে রয়েছেন। যদিও ওই ক্লাবের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে, তারা কোনও হামলা চালায়নি। এমনকী ওই পরিবারের কাছে কোন চাঁদা চাওয়া হয়নি। পুলিশ এখনও কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি। গোটা ঘটনার তদন্তে নেমেছে হাওড়া পুলিশ।

হঠাৎ এক ব্যবসায়ীর বাড়িতে ইট–পাটকেল পড়তে শুরু করে। ভাঙচুরে আতঙ্কিত হযে পড়ে পরিবার। হাওড়ার জগৎবল্লভপুরে এই ঘটনায় শিউরে উঠেছেন অনেকে। এখানের একটি ক্লাব মোটা টাকা চাঁদা দাবি করেছিল। সেই মোটা টাকার চাঁদা দিতে অস্বীকার করেন ব্যবসায়ী। তার জেরেই বাড়িতে ভাঙচুর হয়েছে। মঙ্গলবার মাঝরাতে ঘটনাটি ঘটে হাওড়ার জগৎবল্লভপুরের মুন্সিরহাট এলাকায়।

ঠিক কী ঘটেছে হাওড়ায়?‌ স্থানীয় সূত্রে খবর, ইদ উপলক্ষে মঙ্গলবার রাতে জগৎবল্লভপুরের মুন্সিরহাটে স্থানীয় ক্লাবের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়। সেই অনুষ্ঠান শেষ হওয়ার পর লোহার রড, লাঠি এবং অস্ত্র নিয়ে স্থানীয় ব্যবসায়ী শেখ ইসমাইলের বাড়িতে ভাঙচুর করা হয় বলে অভিযোগ। এমনকী বড় বড় ইট–পাটকেল ছোড়া হয়। কয়েকজন যুবক পাঁচিল টপকে ভিতরে ঢুকে ভাঙচুর চালায়।

ঠিক কী বলছেন ব্যবসায়ী?‌ এই ঘটনায় আক্রান্ত শেখ ইসমাইল অভিযোগ করেন, তাঁর বাড়ি ভাঙচুর করা হয়েছে। দু’‌তিনটি মোটরবাইক এবং সিসিটিভি ক্যামেরা ভাঙচুর করা হয়। পরিবারের সদস্যদের মেরে ফেলার হুমকি দেওয়া হয়। গোটা ঘটনাটাই সিসিটিভি ক্যামেরায় বন্দি আছে। ক্লাবের সদস্যরা ১৫ হাজার টাকা চাঁদা চেয়েছিল। সেটা দিতে অস্বীকার করলে হামলা হয়।

তারপর ঠিক কী হল?‌ পুলিশে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। গোটা পরিবার আতঙ্কে রয়েছেন। যদিও ওই ক্লাবের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে, তারা কোনও হামলা চালায়নি। এমনকী ওই পরিবারের কাছে কোন চাঁদা চাওয়া হয়নি। পুলিশ এখনও কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি। গোটা ঘটনার তদন্তে নেমেছে হাওড়া পুলিশ।

বন্ধ করুন