বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > বাতিল মাধ্যমিক, বাবার সব ইচ্ছা পূরণ হল না! অবসাদে আত্মঘাতী পরীক্ষার্থী
বাতিল মাধ্যমিক, বাবার সব ইচ্ছা পূরণ হল না! অবসাদে আত্মঘাতী পরীক্ষার্থী : ছবি (‌‌সৌজন্য ফেসবুক)
বাতিল মাধ্যমিক, বাবার সব ইচ্ছা পূরণ হল না! অবসাদে আত্মঘাতী পরীক্ষার্থী : ছবি (‌‌সৌজন্য ফেসবুক)

বাতিল মাধ্যমিক, বাবার সব ইচ্ছা পূরণ হল না! অবসাদে আত্মঘাতী পরীক্ষার্থী

  • ঘটনাটি ঘটেছে কোচবিহারের দিনহাটার আটিয়াবাড়ি আম্বালি বাজার এলাকায়। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে মৃত ওই ছাত্রীর নাম বর্ণালি বর্মন(১৬)।

করোনায় জীবনের প্রথম বড় পরীক্ষা বাতিল হয়েছে। পরীক্ষা দিতে না পেরে অবসাদে আত্মঘাতী হল মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী। মানসিক অবসাদে ভুগছিল সে। অবশেষে গলায় শাড়ির প্যাঁচ লাগিয়ে আত্মঘাতী হল ওই ছাত্র্রী। ঘরের মধ্যে থেকে উদ্ধার করা হল তার ঝুলন্ত দেহ। মর্মান্তিক এই ঘটনাটি ঘটেছে কোচবিহারের দিনহাটার আটিয়াবাড়ি আম্বালি বাজার এলাকায়। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে মৃত ওই ছাত্রীর নাম বর্ণালি বর্মন(১৬)।

পরিববার সূত্রে জানা গিয়েছে, এবারে মাধ্যমিক পরীক্ষা দেওয়ার কথা ছিল তাঁর। দিনহাটা গোপালনগর এমএসএস হাইস্কুলের মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী ছিল বর্ণালি। সেই মতো প্রস্তুতিও নিচ্ছিল। দিনরাত পড়াশোনায় ডুবে থাকত বর্ণালি। পরীক্ষায় ভাল ফল করে, জীবনে প্রতিষ্ঠিত হয়ে বাবার পাশে দাঁড়াতে চেয়েছিল সে। কিন্তু বেশ কিছু দিন ধরেই এবছরের মাধ্যমিক উচ্চমাধ্যমিক বাতিল হওয়ার সম্ভাবনা ছিল। করোনা পরিস্থিতি বিবেচনা করে সোমবারই মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, চলতি বছরে মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা নেওয়া হবে না। নাবালিকার পরিবারের দাবি, এই খবর পাওয়া মাত্রই অবসাদগ্রস্ত হয়ে পড়ে বর্ণালি। পরীক্ষা বাতিলের ঘোষণা শুনেই মন ভেঙে গিয়েছিল বর্ণালির। এই দু’ এক দিন ধরে সকলের সঙ্গে থাকলেও কারও সঙ্গে তেমন কোনও কথা বলছিল না সে।

সোমবার রাতে ঘরে ঢুকে দরজা বন্ধ করে দেয় বর্ণালি। পরীক্ষার পড়াশুনা করছে ভেবে কেউ আর তখন তাকে ডাকাডাকি করেননি। কিন্তু খাওয়ার সময় পরিবারের সদস্যরা ডাকাডাকি করেও তার সাড়া পায়নি। তাঁদের চিৎকারে পাড়া পড়শিরা ছুটে আসেন। এরপরই ঘরের দরজা ভেঙে ভেতরে ঢুকে তাঁরা দেখতে পান সিলিং ফ্যানের সঙ্গে গলায় মায়ের শাড়ি দিয়ে ফাঁস লাগিয়ে ঝুলছে সে। পরিবারের দাবি, দেহের পাশ থেকে একটি সাদা চিরকুট উদ্ধার হয়েছে। তাতে লাল কালিতে লেখা ছিল, ‘বাবা আমি তোমার সব কাজ সম্পূর্ণ করতে পারলাম না।ইতি তোমার মেয়ে।’ ইতিমধ্যেই ঘটনাস্থলে গিয়ে নাবালিকার দেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে দিনহাটা থানার পুলিশ।

উল্লেখ্য, করোনা আবহে সংক্রমণের ঝুঁকি এড়িয়ে মাধ্যমিক-উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব কি না, তা জানতে একটি বিশেষজ্ঞ কমিটি গঠন করা হয়েছিল। সেই কমিটির রিপোর্ট ও রাজ্যবাসীর মতামতের ভিত্তিতে চলতি বছর মাধ্যমিক-উচ্চমাধ্যমিক বাতিল করেছে রাজ্য সরকার।
 

বন্ধ করুন