বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ২০ মিনিটের মধ্যে মহিলার হারানো ব্যাগ উদ্ধার করল ক্যানিং ট্রাফিক পুলিশ
২০ মিনিটের মধ্যে মহিলার হারানো ব্যাগ উদ্ধার করল ক্যানিং ট্রাফিক পুলিশ: ছবি (‌স্ক্রিন শর্ট)‌
২০ মিনিটের মধ্যে মহিলার হারানো ব্যাগ উদ্ধার করল ক্যানিং ট্রাফিক পুলিশ: ছবি (‌স্ক্রিন শর্ট)‌

২০ মিনিটের মধ্যে মহিলার হারানো ব্যাগ উদ্ধার করল ক্যানিং ট্রাফিক পুলিশ

  • সেই ব্যাগের মধ্যেই ছিল তার যাবতীয় গুরুত্বপূর্ণ নথিপত্র। ছিল আধার কার্ড, ভোটার কার্ড, দামি মোবাইল ফোন, টাকা-সহ বেশ কিছু মূল্যবান নথি। আর সময় নষ্ট না-করে তড়িঘড়ি ট্রাফিক কন্ট্রোলের ওসির কাছে যান ফুলজান বিবি নামের ওই মহিলা। 

কুড়ি মিনিটের মধ্যে মহিলার হারানো ব্যাগ উদ্ধার করে নজির গড়ল ক্যানিংয়ের ট্রাফিক পুলিশ। কোলে একরত্তি শিশু থাকায় বাচ্চাকে সামাল দিতেই ব্যস্ত ছিলেন তিনি। সে কারণে ভুল করে অটোতে ব্যাগ ফেলে নেমে গিয়েছিলেন মহিলা। কিছুটা এগোতেই তাঁর খেয়াল হয়, সঙ্গে আনা ব্যাগ তাঁর কাছে নেই। অটোতেই ফেলে এসেছেন সেটি। সেই ব্যাগের মধ্যেই ছিল তার যাবতীয় গুরুত্বপূর্ণ নথিপত্র। ছিল আধার কার্ড, ভোটার কার্ড, দামি মোবাইল ফোন, টাকা-সহ বেশ কিছু মূল্যবান নথি। আর সময় নষ্ট না-করে তড়িঘড়ি ট্রাফিক কন্ট্রোলের ওসির কাছে যান ফুলজান বিবি নামের ওই মহিলা। তাঁর কাছ থেকে ঘটনার বিবরণ শুনে ব্যাগটি উদ্ধার করতে তৎপর হন ক্যানিং ট্রাফিক কন্ট্রোলের কর্তব্যরত ওসি দেবব্রত সরকার।

অভিযোগ পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই ব্যাগ খুঁজতে নেমে পড়েন তিনি। ১৫ মিনিটের মধ্যেই সেই ব্যাগের সন্ধান পান তিনি। অক্ষত অবস্থায় উদ্ধার হয় ওই মহিলার হারিয়ে যাওয়া ব্যাগটি।ক্যানিং থানার মাতলা ব্রিজ সংলগ্ন এলাকায় রবীন্দ্রমূর্তির তলায় ফুলজান বিবির হাতে হারিয়ে যাওয়া ব্যাগটি তুলে দেন কর্তব্যরত ট্রাফিক পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, মঙ্গলবার সকালে এক মহিলা উদভ্রান্তের মতো ছুটে আসেন কর্তব্যরত ট্রাফিক ওসি দেবব্রত সরকারের কাছে। তিনি তাঁর নাম ফুলজান বিবি বলে জানান। কাঁদতে কাঁদতে তিনি জানান, অটোর মধ্যে তাঁর ব্যাগ হারিয়ে গিয়েছে। সেই ব্যাগের মধ্যেই তাঁর যাবতীয় গুরুত্বপূর্ণ নথিপত্র ছিল বলে জানান তিনি। ওই মহিলা আরও জানান, বাসন্তীর ভাঙনখালির খেড়িয়া থেকে তিনি অটোতে উঠেছিলেন। নামেন বাসন্তী ডকঘাট এলাকার শিমুলতলা মোড়ে। সঙ্গে তাঁর ব্যাগ নেই বুঝতে পেরেই ট্রাফিক পুলিশের শরণাপন্ন হন ওই মহিলা।

অবশ্য পুলিশে অভিযোগ জানানোর অনেক আগেই অটোটি যাত্রী নামিয়ে রবীন্দ্র মূর্তি সংলগ্ন অটো স্ট্যান্ডে দাঁড়িয়েছিল। সেখানে গিয়ে দেখা যায়, ফুলজান বিবির ব্যাগ অটোর মধ্যে নেই। খোঁজ নিয়ে দেবব্রত বাবু জানতে পারেন, অটোর কোনও যাত্রী সেই ব্যাগটি হাতিয়ে চম্পট দিয়েছে। তৎক্ষনাৎ তিনি ওই মহিলার ব্যাগের মধ্যে থাকা মোবাইলে ফোন করেন। কয়েকবার রিং হতেই অপরিচিত যাত্রী ফোনটি ধরেন। নিজের পরিচয় দিয়ে ওই যাত্রীকে ভয় দেখাতেই ব্যাগটি ফেরত দিতে সম্মত হন তিনি। অবশেষে ক্যানিং হাসপাতাল মোড় থেকে অক্ষত অবস্থায় সেই ব্যাগটি উদ্ধার করে ক্যানিং ট্রাফিক পুলিশ। সম্পূর্ণ ঘটনাটি ২০ মিনিটের মধ্যেই ঘটে যায়। ব্যাগ ফিরে পেয়ে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলছেন ফুলজান বিবি। তিনি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন ওই ট্রাফিক আধিকারিককে।

 

বন্ধ করুন