বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > জিটিএ অধীনস্থ স্কুলে শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতির অভিযোগ, সিবিআই চায় বিজেপি
 সিবিআই। প্রতীকী ছবি।

জিটিএ অধীনস্থ স্কুলে শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতির অভিযোগ, সিবিআই চায় বিজেপি

  • জুনের শেষে জিটিএ নির্বাচন হতে চলেছে পাহাড়ে। তার আগে বিজেপি বিধায়কের এই অভিযোগ ভোটে কোনও প্রভাব ফেলবে কিনা, এখন সেটাই দেখার।

শুধু এসএসসি বা প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রেই নয়, গোর্খা টেরিটোরিয়াল অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের অধীনস্থ স্কুলে শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রেও দুর্নীতি হয়েছে। এমনই চাঞ্চল্যকর অভিযোগ আনলেন বিজেপি বিধায়ক বিষ্ণুপ্রসাদ শর্মা। এই দুর্নীতি কাণ্ডেও সিবিআই তদন্তের দাবি জানালেন তিনি। সিবিআইয়ের কাছে চিঠি দিয়ে এই দুর্নীতি মামলায় তদন্তের দাবি জানিয়েছেন বিজেপি বিধায়ক। উল্লেখ্য, এসএসসিতে শিক্ষক নিয়োগ মামলায় ইতিমধ্যেই সিবিআই তদন্ত চলছে। পাশাপাশি প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগে দুর্নীতি নিয়েও সিবিআই তদন্ত করছে।

সিবিআইকে লেখা বিজেপি বিজেপি বিধায়ক বিষ্ণুপ্রসাদ শর্মার চিঠিতে উল্লেখ রয়েছে, ২০১৯ সালে জিটিএ–এর অন্তর্গত স্কুলে প্রাথমিকে ১২১ জন, উচ্চ প্রাথমিকে ৫৯ জন ও মাধ্যমিক–উচ্চমাধ্যমিক স্তরে ৩১৩ জন শিক্ষক শিক্ষিকা নিয়োগ হয়েছিল। বিজেপি বিধায়কের অভিযোগ, এই নিয়োগের ক্ষেত্রে কোনও সরকারি বিজ্ঞপ্তি জারি হয়নি। সেইসঙ্গে কোনও পরীক্ষা বা ইন্টারভিউ নেওয়া হয়নি। যোগ্য প্রার্থীরা চাকরি পাননি। এই শূন্যপদ পূরণ করার ক্ষেত্রে কোনও যোগ্যতার মাপকাঠি দেখা হয়নি। গত ১৬ জুন দুর্নীতি সংক্রান্ত নথি সিবিআইয়ের হাতে তুলে দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন বিজেপি বিধায়ক।

ইতিমধ্যে চাকরিপ্রার্থীদের একটি সংগঠন এই বিষয়ে হাই কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছেন। আদালতের পর্যবেক্ষণ এই ক্ষেত্রে কী সেটাই এখন দেখার। জুনের শেষে জিটিএ নির্বাচন হতে চলেছে পাহাড়ে। তার আগে বিজেপি বিধায়কের এই অভিযোগ ভোটে কোনও প্রভাব ফেলবে কিনা, এখন সেটাই দেখার। এর আগে এসএসসি ও প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগে দুর্নীতি সামনে আসায় অনেকজনের চাকরি বাতিল করেছে হাইকোর্ট।

বন্ধ করুন