বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Hanshkhali case: দ্রুত জাল গোটাতে তৎপর গোয়েন্দা, ধৃত রঞ্জিতকে হেফাজতে চায় CBI

Hanshkhali case: দ্রুত জাল গোটাতে তৎপর গোয়েন্দা, ধৃত রঞ্জিতকে হেফাজতে চায় CBI

হাঁসখালিতে অভিযুক্তের বাড়িতে CBI. ফাইল চিত্র

সূত্রের খবর, এই ঘটনায় ধৃতদের মুখোমুখি বসিয়ে জেরা করার পরিকল্পনা রয়েছে সিবিআইয়ের।

হাঁসখালি কাণ্ডের তদন্তে নামার পরেই একাধিক গুরুত্বপূর্ণ সূত্র পেয়েছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সিবিআই। ঘটনার তদন্তে নেমে পুলিশ দুইজনকে গ্রেফতার করেছিল। গতকাল সিবিআই আরও একজনকে গ্রেফতার করেছে। রঞ্জিত মল্লিক নামে ওই যুবককে রানাঘাট থেকে গ্রেফতার করা হয়। এটিই হল সিবিআইয়ের প্রথম গ্রেফতার। অন্যদিকে, হাঁসখালি কাণ্ডে নির্যাতিতার মা এবং বাবার বয়ান রেকর্ড করেছে সিবিআই। সূত্রের খবর, কৃষ্ণনগরে অস্থায়ী ক্যাম্পে বসে তদন্তের যে পরিকল্পনা করেছিলেন তদন্তকারীরা, সেই অনুযায়ী কাজ অনেকটাই এগিয়েছে। এ বার তদন্তের জাল গুটিয়ে আনতে চাইছেন তাঁরা। আজ আদালতে তুলে রঞ্জিতকে নিজেদের হেফাজত চাইবে সিবিআই।

সূত্রের খবর, এই ঘটনায় ধৃতদের মুখোমুখি বসিয়ে জেরা করার পরিকল্পনা রয়েছে সিবিআইয়ের। তবে সেটা ওই ধৃতকে নিজেদের হেফাজতে পেলে তবেই সম্ভব হবে। তাদের কাছে যে তথ্য রয়েছে তার ভিত্তিতে অভিযুক্তকে নিজেদের হেফাজতে পেতে কোনও সমস্যা হবে না বলেই মনে করছেন সিবিআইয়ের আধিকারিকরা। সিবিআই সূত্রে জানা গিয়েছে, রঞ্জিত মল্লিক নামে যে যুবককে গ্রেফতার করা হয়েছে গত ৪ এপ্রিল জন্মদিনের পার্টি এবং গণধর্ষণের সময় উপস্থিত ছিল। ১০ এপ্রিল মূল অভিযুক্ত গ্রেফতার হওয়ার পরেই তারা বাড়ির সকলে মিলে সপরিবারে গা ঢাকা দিয়েছিল। রানাঘাটের একটি বাড়িতে তারা গা ঢাকা দিয়েছিল বলে জানতে পারেন সিবিআইয়ের তদন্তকারী আধিকারিকরা।

উল্লেখ্য, এই মামলায় আগেই গ্রেফতার হয়েছে সোহেল গয়ালি ও প্রভাকর পোদ্দার। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করে তৃতীয় ব্যক্তির সন্ধান পায় সিবিআই। ইতিমধ্যেই, অভিযুক্তের ঘরের মেঝেতে পাওয়া রক্তের দাগ সহ হাতের ছাপ সহ বিভিন্ন নমুনা সংগ্রহ করেছে কেন্দ্রীয় ফরেন্সিক ল্যাবরেটরির প্রতিনিধিরা। একই সঙ্গে শ্মশান থেকে বহু তথ্য সংগ্রহ করেছেন সিবিআই আধিকারিকরা। সবমিলিয়ে দ্রুত এই তদন্তের জাল গুটিয়ে ফেলতে চাইছেন সিবিআই আধিকারিকরা।

বন্ধ করুন