বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > 100 days work: ১০০ দিনের কাজে অনিয়মের অভিযোগে ৪ জেলা প্রশাসনকে জরিমানা করল কেন্দ্র

100 days work: ১০০ দিনের কাজে অনিয়মের অভিযোগে ৪ জেলা প্রশাসনকে জরিমানা করল কেন্দ্র

১০০ দিনের কাজে অনিয়মের অভিযোগ। প্রতীকী ছবি

 পূর্ব বর্ধমানে জরিমানা করা হয়েছে ১ কোটি টাকা এবং মালদহে ২৬ লক্ষ ও দার্জিলিংয়ে ১৭ লক্ষ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। প্রসঙ্গত, ১০০ দিনের কাজে মজুরি বন্ধ করে দেওয়া নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে অভিযোগ বারবার তুলেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

১০০ দিনের কাজে অনিয়মের অভিযোগ প্রথম নয়। এবার এই নিয়ে সক্রিয় হল কেন্দ্র। ১০০ দিনের কাজে অনিয়মের অভিযোগে বিভিন্ন জেলা প্রশাসনকে জরিমানা করল কেন্দ্র। হুগলি, পূর্ব বর্ধমান, মালদহ এবং দার্জিলিংয়ের জেলা প্রশাসনকে এই জরিমানা করা হয়েছে। আর এই নিয়ে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক তরজা। একদিকে, যেমন বিরোধীরা দুর্নীতি নিয়ে সরব হয়েছে, অন্যদিকে শাসকদল এই জরিমানাকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিত বলেই মনে করছে।

নবান্ন সূত্রে জানা গিয়েছে, সম্প্রতি ১০০ দিনের কাজের খতিয়ান দেখতে এসেছিল কেন্দ্রীয় দল। তারাই এই জরিমানা করেছে। রাজ্যের পেশ করার খতিয়ান না মেলায় হুগলি জেলা প্রশাসনকে ২ কোটি টাকা জরিমানা করা হয়েছে। পূর্ব বর্ধমানে জরিমানা করা হয়েছে ১ কোটি টাকা এবং মালদায় ২৬ লক্ষ ও দার্জিলিংয়ে ১৭ লক্ষ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। প্রসঙ্গত, ১০০ দিনের কাজে মজুরি বন্ধ করে দেওয়া নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে অভিযোগ বারবার তুলেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

যদিও মোদী সরকারের দাবি, ঠিকমতো কাজ না হওয়ার কারণে এই পদক্ষেপ করা হয়েছে। আর এই নিয়ে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক চাপানোতর। এ বিষয়ে রাজ্যের পঞ্চায়েত মন্ত্রী পুলক রায় জানিয়েছেন, ‘গত দু'বছর কোভিডের কারণে কাজের ক্ষতি হয়েছে। তারপরেও গত কয়েক বছর ধরে কর্মদিবসে রাজ্য প্রথম স্থানে রয়েছে। কোভিডের ক্ষতিপূরণের জন্য কিছু সময় দরকার। এই সময় টাকা বন্ধ করা একেবারে ঠিক নয়।’

রাজ্যের প্রশাসনিক কর্তারা জানাচ্ছেন, নিয়মিত কাজের খতিয়ান দিল্লিতে পাঠানো হয়েছে। হতে পারে যেখানে পুকুর বড় হওয়ার কথা ছিল সেখানে তা ছোট মনে হয়েছে কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দলের। একইসঙ্গে কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল কতটা নিরপেক্ষ তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন তারা। অবশ্য রাজ্য বিজেপির মুখপাত্র শমীক ভট্টাচার্য এ নিয়ে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ করেছেন। তিনি বলেন, ‘কাজের স্বচ্ছতা নিয়ে তদন্ত হওয়া উচিত।’

বন্ধ করুন