বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Snake bite: ঠাকুর ঘর মুছতে গিয়েই বিপদ! হাতে ছোবল বসিয়ে দিল সাপ! মর্মান্তিক পরিণতি শিশুর
সাপের কামড়ে মৃত্যু শিশুর। প্রতীকী ছবি।

Snake bite: ঠাকুর ঘর মুছতে গিয়েই বিপদ! হাতে ছোবল বসিয়ে দিল সাপ! মর্মান্তিক পরিণতি শিশুর

  • পারিবারিক সূত্রে জানা গিয়েছে, মাটির মেঝের ঘর রয়েছে তাদের। প্রতিদিন সকালে উঠে ঠাকুর ঘর লেপে দিত ওই শিশু। আজ সকালেও রোজকার মতো ঠাকুর ঘর লেপছিল শিশুটি। সেই সময় হঠাৎ ঘরের ভিতরে অবস্থিত একটি ইঁদুরের গর্ত থেকে সাপ বেরিয়ে এসে তার হাতে ছোবল বসিয়ে দেয়।

মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটল জলপাইগুড়ির ময়নাগুড়িতে। ঠাকুর ঘর মুছতে গিয়ে হাতে ছোবল বসিয়ে দিল সাপ। আর তাতেই মৃত্যুর কোলে ঢোলে পড়ল দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রী। আজ সকালে ঘটনাটি ঘটেছে ময়নাগুড়ি ব্লকের বার্নিশ বাজার সংলগ্ন এলাকায়। মৃত ছাত্রীর নাম নন্দিতা কোঙ্গার। পরিবারের লোকজন তড়িঘড়ি তাকে হাসপাতালে নিয়ে গেলেও চিকিৎসকরা বাঁচাতে পারেননি। সেখানেই মৃত্যু হয় ওই শিশুর।

পারিবারিক সূত্রে জানা গিয়েছে, মাটির মেঝের ঘর রয়েছে তাদের। প্রতিদিন সকালে উঠে ঠাকুর ঘর লেপে দিত ওই শিশু। আজ সকালেও রোজকার মতো ঠাকুর ঘর লেপছিল শিশুটি। সেই সময় হঠাৎ ঘরের ভিতরে অবস্থিত একটি ইঁদুরের গর্ত থেকে সাপ বেরিয়ে এসে তার হাতে ছোবল বসিয়ে দেয়। এরপরে চিৎকার করতে থাকে ওই শিশু। তার চিৎকার শুনে সেখানে ছুটে আসেন বাড়ির সদস্যরা। তখন তারা সাপটিকে দেখতে পেয়ে আতঙ্কিত হয়ে ওঠেন। বুঝতে পারেন যে বিপদ ঘটেছে। এরপর তড়িঘড়ি ওই শিশুকে ময়নাগুড়ি গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যান পরিবারের সদস্যরা। সেখানে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

মৃত শিশুর বাবা অমৃত নারায়ণ কোঙ্গার বলেন, ‘ঘটনার সময় আমি বাড়িতে ছিলাম না। বাড়ি এসে আমি জানতে পারি বিপদ ঘটেছে। হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন।’ উল্লেখ্য, গরম পড়তেই রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় বেড়েছে সাপের উৎপাত। বহু জায়গায় এখনও পর্যন্ত সাপের কামড়ে মৃত্যু হয়েছে বহু মানুষের। বিভিন্ন ক্ষেত্রে আবার দেখা গিয়েছে সাপে কামানোর রোগীকে হাসপাতালে না নিয়ে গিয়ে ওঝার কাছে নিয়ে যেতে। যারফলে চিকিৎসা না পেয়ে আবার সাপে কামড়ানো অনেক মানুষের মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে।

বন্ধ করুন