(প্রতীকী ছবি)
(প্রতীকী ছবি)

বীরভূমের পাড়ুইয়ে কোয়ারেন্টাইন সেন্টার খোলা নিয়ে সংঘর্ষে গুলি, নিহত যুবক

  • একটি গ্রামের স্কুলে করোনা কোয়ারেন্টাইন সেন্টার তৈরি করা নিয়ে গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব বাধে।

গ্রামে Covid-19 কোয়ারেন্টাইন সেন্টার তৈরি করা নিয়ে দুই গোষ্ঠীর মধ্যে সংঘর্ষের ফলে বীরভূমের পাড়ুইয়ে প্রাণ হারালেন একজন। আহত আর এক গ্রামবাসী।

স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, শনিবার বীরভূমের পাড়ুইয়ে একটি গ্রামের স্কুলে করোনা কোয়ারেন্টাইন সেন্টার তৈরি করা নিয়ে গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব বাধে। ঘটনায় গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা গিয়েছেন শেখ সইফুদ্দিন নামে এক যুবক। ঘটনার জেরে এলাকাজুড়ে চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে।

এ দিনের ঘটনায় পায়ে গুলি বিঁধে জখম হয়েছেন আরও এক তরুণ। খবর পেয়ে গ্রামে পৌঁছয় বিশাল পুলিশবাহিনী। রাত ১০টা পর্যন্ত পাওয়া খবর অনুযায়ী, গ্রামে পুলিশ পোস্টিং হয়েছে। খবর পাঠানো হয়েছে প্রশাসনিক কর্তাদেরও।

জ০ানা গিয়েছে, এ দিন সকালে পাড়ুইয়ের ওই গ্রামের স্কুলে করোনা আক্রান্তদের কোয়ারেন্টাইন সেন্টার খোলার বিষয়ে খতিয়ে দেখতে পৌঁছয় সরকারি প্রতিনিধি দল। তাঁরা চলে যাওয়ার পরে গ্রামের স্কুলে কোয়ারেন্টাইন খোলা নিয়ে দুই গোষ্ঠীর মধ্যে বচসা বাধে।

পরিস্থিতি ক্রমে উত্তচপ্ত হয়ে উঠলে তা সশস্ত্র সংঘর্ষে বদলে যায়। বাসিন্দাদের অভিযোগ, ঘটনায় গুলি চতলে। বোমা বিস্ফোরণও ঘটানো হয়। এই সময়েই গুলি বিঁধে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন শেখ সইফুদ্দিন। কিছু ক্ষণের মধ্যে তাঁর মৃত্যু হয়। গুলি লাগে আর এক যুবকের পায়েও।



বন্ধ করুন