বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > BJP বিরোধী প্রতিবাদ মিছিলে তৃণমূলের গোষ্ঠী দ্বন্দ্ব, সংঘর্ষে উত্তপ্ত জামুড়িয়া
ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য সমীর জানা/হিন্দুস্তান টাইমস
ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য সমীর জানা/হিন্দুস্তান টাইমস

BJP বিরোধী প্রতিবাদ মিছিলে তৃণমূলের গোষ্ঠী দ্বন্দ্ব, সংঘর্ষে উত্তপ্ত জামুড়িয়া

  • কেন্দ্রের বিজেপি সরকারকে তোপ দাগতে পশ্চিম বর্ধমানের জামুড়িয়ায় মিছিল বের করেছিল তৃণমূল। সেখানেই হয় গোষ্ঠী সংঘর্ষ।

কেন্দ্রের বিজেপি সরকারকে তোপ দাগতে পশ্চিম বর্ধমানের জামুড়িয়ায় মিছিল বের করেছিল তৃণমূল। জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে এই মিছিলে অবশ্য প্রকাশ্যে চলে এল তৃণমূল কংগ্রেসেরই গোষ্ঠী দ্বন্দ্ব। যা ঘিরে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ায় গোটা এলাকায়। ঘাসফুল শিবিরের একাংশ অভিযোগ করে যে সদ্য সিপিএম-বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দেওয়া কর্মীদের নিয়ে মিছিল হচ্ছে। আর তাতেই ক্ষেপেছেন তাঁরা। এর প্রতিবাদ করতে গিয়ে আক্রান্তও হতে হয় তাঁদের। এদিকে মিছিলে হাঁটা অপর অংশের অভিযোগ, মিছিলে বহিরাতদের দিয়ে হামলা চালানো হয়েছিল।

জানা গিয়েছে, ক্রমাগত বাড়তে থাকা পেট্রল-ডিজেলের দাম নিয়ে কেন্দ্রকে বিঁধতে মিছিল বের করা হয়েছিল জামুড়িয়ার এক নম্বর ব্লকে। রবিবার সেই মিছিল শুরু হয় আকলপুর ব্রিজ থেকে। মণ্ডলপুরে পৌঁছতেই মিছিলে বাঁধা দেওয়া হয়। বাঁধা দেয় তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মীদের একাংশ। ব্লক সভাপতি সাধন রায়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠে, যে তিনি বহিরাগতদের নিয়ে এই মিছিল করছেন। এর প্রতিবাদে মিছিলে ডাক না পাওয়া নেতা কর্মীরা সরব হন। মিছিল থামিয়ে তাঁরা এই নিয়ে সাধন রায় এবং মিছিলে হাঁটা কর্মীদের সঙ্গে বচলায় জড়ান।

ঘটনায় দুই পক্ষের বচসা ক্রমেই হাতাহাতি পরিণত হয়। ক্রমেই আরও উত্তপ্ত হয়ে ওঠে পরিস্থিতি। লাঠি নিয়ে একে অপরের দিকে তেড়ে যান কর্মীরা। ঘটনায় শেখ সুখলাল মণ্ডল নামক এক ব্যক্তির মাথা ফাটে। ঘটনার খবর পেয়ে জামুড়িয়া থানার পুলিশ সেখানে পৌঁছায়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়। দুই পক্ষই একে অপরের বিরুদ্ধে পুলিশের কাছে নালিশ জানিয়েছে।

এই ঘটনা প্রসঙ্গে মিছিলে ডাক না পাওয়া তৃণমূল ছাত্র পরিষদের ব্লক সভাপতি পিন্টু দত্ত অভিযোগ করেন, 'আমরা শুধু প্রতিবাদ জানিয়েছিলাম। এই কারণেই মিছিল শেষ হতেই আমাদের ওপর হামলা চালানো হয়। প্রতিবাদীরা আক্রান্ত হয়েছেন। আমাদের মধূসূদন মাঝি, মিহির আঢ্যরা গুরুতর ভাবে জখম হয়েছেন।'

বন্ধ করুন