বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > তিন জেলার প্রার্থীদের জন্য আবারও হবে ক্লার্কশিপ পার্ট-২ পরীক্ষা, দেখুন তারিখ
শুধুমাত্র মালদহ, উত্তর দিনাজপুর, এবং দক্ষিণ দিনাজপুরের যে প্রার্থীদের আসন শিলিগুড়ি কেন্দ্রে পড়েছিল, তাঁরাই পরীক্ষা দিতে পারবেন। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য এএনআই)
শুধুমাত্র মালদহ, উত্তর দিনাজপুর, এবং দক্ষিণ দিনাজপুরের যে প্রার্থীদের আসন শিলিগুড়ি কেন্দ্রে পড়েছিল, তাঁরাই পরীক্ষা দিতে পারবেন। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য এএনআই)

তিন জেলার প্রার্থীদের জন্য আবারও হবে ক্লার্কশিপ পার্ট-২ পরীক্ষা, দেখুন তারিখ

  • পরীক্ষার সাতদিন আগে কমিশনের ওয়েবসাইটে অ্যাডমিট কার্ড প্রকাশ করা হতে পারে বলে জানানো হয়েছে।

উত্তরবঙ্গে রেল ও সড়ক অবরোধের জন্য অনেক প্রার্থী পরীক্ষাকেন্দ্রে পৌঁছাতে পারেননি। সেজন্য আগামী ২৬ ডিসেম্বর আবারও ক্লার্কশিপ পার্ট-২ পরীক্ষা নেওয়া হবে বলে জানাল পশ্চিমবঙ্গ পাবলিক সার্ভিস কমিশন (পিএসসি)। শুধুমাত্র মালদহ, উত্তর দিনাজপুর, এবং দক্ষিণ দিনাজপুরের যে প্রার্থীদের আসন শিলিগুড়ি কেন্দ্রে পড়েছিল, তাঁরাই পরীক্ষা দিতে পারবেন।

গত ৬ ডিসেম্বর সকাল ১১ টা থেকে বেলা ১২ টা থেকে পশ্চিমবঙ্গ পাবলিক সার্ভিস কমিশনের ক্লার্কশিপ পার্ট-২ পরীক্ষা ছিল। কিন্তু সারনা ধর্মকে বৈধতা দেওয়ার দাবিতে সেদিন সকাল ছ'টা থেকে উত্তরবঙ্গের বিস্তীর্ণ এলাকায় রেল ও সড়ক অবরোধ শুরু হয়েছিল। আদিনা, ডালখোলা-সহ উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন প্রান্তে অবরোধ চলতে থাকে। আটকে পড়েছিল উত্তরবঙ্গগামী একাধিক ট্রেন। অবরুদ্ধ হয়ে পড়েছিল ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক। তার জেরে চূড়ান্ত বিপাকে পড়েছিলেন ক্লার্কশিপ পার্ট-২ পরীক্ষার প্রার্থীরা। মূলত শিলিগুড়িতে যে প্রার্থীদের আসন পড়েছিল, তাঁরা অনেকেই পরীক্ষাকেন্দ্রে পৌঁছাতে পারেননি।

সেই পরিস্থিতিতে তাঁদের দ্বিতীয়বার পরীক্ষায় বসার সুযোগ দেওয়ার জন্য পিএসসির কাছে অনুরোধ করেছিল রাজ্য সরকার। সেই অনুরোধ আগেই মেনে নিয়েছিল কমিশন। এবার পরীক্ষার নয়া তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে। 

কমিশনের তরফে বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, মালদহ, উত্তর দিনাজপুর, এবং দক্ষিণ দিনাজপুরের প্রার্থীদের গড় উপস্থিতির হার ছিল ৭৩ শতাংশ। সেখানের বাকি জেলার গড়ে ৯১ শতাংশ প্রার্থী উপস্থিত ছিলেন। সেই ব্যবধান থেকেই স্পষ্ট যে একটা বড় অংশের প্রার্থীরা রেল ও সড়ক অবরোধের জন্য পরীক্ষা দিতে পারেননি। সেজন্য আগামী ২৬ ডিসেম্বর (শনিবার) শিলিগুড়ির কয়েকটি নির্বাচিত কেন্দ্রে ওই তিন জেলার প্রার্থীরা পরীক্ষা দিতে পারবেন। সকাল ১১ টা থেকেই শুরু হবে পরীক্ষা। আর পরীক্ষার সাতদিন আগে কমিশনের ওয়েবসাইটে অ্যাডমিট কার্ড প্রকাশ করা হতে পারে বলে জানানো হয়েছে।

বন্ধ করুন